প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :          নাইট রাইডার্স এর মালিক- এক মাস আগে ইডেনে নাইটদের প্রথম ম্যাচে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। যে ম্যাচে বিরাট কোহালির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে চার উইকেটে হারিয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। খেলা শেষে মেয়ের হাত ধরে ইডেন পরিক্রমা করে খুশি মনে হোটেলে ফিরেছিলেন ‘কিং খান’ শাহরুখ।

 

 

 

তার পরে বুধবার ফের ইডেনে এলেন তিনি। কিন্তু টিম মালিকের আবির্ভাবেও মুম্বই জয় হল না কেকেআরের। ১০২ রানে ম্যাচ হেরে খেলা শেষ হওয়ার আগেই মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন হতাশ শাহরুখ। বিশাল ব্যবধানে হারের পরে নাইট মালিক ইডেন ছাড়লেন মুখ কালো করে।

 

 

 

 

ঘড়ির কাঁটায় তখন রাত এগারোটা বাইশ। স্কোরবোর্ডে কেকেআরের রান তখন ৭৭-৭। সেখান থেকেই দেখলেন পীযূষ চাওলার আউট। এর পরেই বাদশার স্টেডিয়াম ছাড়ার প্রস্তুতি।

 

 

 

 

হনহন করে এগিয়ে গেলেন গাড়ির দিকে। দ্রুত দরজা বন্ধ করে ছাড়লেন ইডেন প্রাঙ্গন। ১০.২ ওভারের মাথায় রিঙ্কু সিংহ যখন যশপ্রীত বুমরার বলে আউট হয়ে ফিরছেন তখন শেষ বার শাহরুখকে দেখা গেল নাইটদের বক্সের বারান্দায়।

 

 

 

 

গতকাল ম্যাচ শেষে নাইট রাইডার্স এর মালিক শাহরুখ খান কি করলেন জানেন..

আর তার পরেই মাঠে ঢুকে ভক্তদের সঙ্গে দেখা করতে না পারার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী শাহরুখের টুইট, ‘খেলার মাঠে একটা লড়াইয়ের মানসিকতা কাজ করে।

 

 

 

 

জয়-পরাজয়টা সেখানে বড় ব্যাপার নয়। কিন্তু আজ সেই লড়াইয়ের অভাবটাই দেখলাম আমার দলে। তার জন্য ভক্তদের কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী’। তখনও ১৭তম ওভারের খেলা চলছে ইডেনে। স্কোর বোর্ডে তখন কলকাতা ১০৬-৯।

 

 

 

 

 

এমনিতেই মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ম্যাচ মানে তা শাহরুখের কাছে মর্যাদার লড়াই। প্রত্যেক বছরই যে ম্যাচটি এলে শাহরুখ স্বপ্ন দেখেন তাঁর শহর মুম্বইকে হারানোর।

 

 

 

 

কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই তা শাহরুখকে ব্যর্থতার ধাক্কাই দিয়ে গিয়েছে। গত এগারো বছরে ইডেনে তাঁর দল এই ম্যাচটায় হেরেছে নয় বার।

 

 

 

 

 

কিন্তু এ বারও সেই দুর্ভাগ্যই তাড়া করল শাহরুখকে। এল না প্রত্যাশিত জয়। পর পর দুই ম্যাচে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে হার। তার উপর এ দিনই কেকেআরকে টপকে আইপিএলের প্রথম চারে ঢুকে পড়ল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। ফলে হতাশা স্বাভাবিক।

 

 

 

 

 

গতকাল ম্যাচ শেষে নাইট রাইডার্স এর মালিক শাহরুখ খান কি করলেন জানেন..

গত কয়েক ম্যাচ ধরেই শাহরুখকে দেখার প্রত্যাশায় চাতকের মতো প্রতীক্ষায় ছিলেন কলকাতার ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ। দুপুরেই জানা হয়ে গিয়েছিল, এ দিন মাঠে হাজির থাকবেন শাহরুখ।

 

 

 

 

 

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটে ভেসে উঠেছিল শাহরুখের টুইট, ‘কলকাতা ইডেনে দেখা হচ্ছে। আজকে প্রিয় দলের জন্য সমর্থনের আওয়াজ যেন সবকিছু ছাপিয়ে যায়।’ সেই আকর্ষণেই সূর্য ডুবতে কলকাতা ইডেনমুখী।

 

 

 

 

কেকেআর মালিক বারান্দায় দাঁড়িয়েই দেখলেন ব্যাট করছেন বিপক্ষ অধিনায়ক রোহিত শর্মা। বোলার কুলদীপ যাদব।

 

 

 

 

 

কিন্তু সেই তেরোতম ওভারে কুলদীপকে ঈশান কিসান শেষ চার বলে চারটি ছক্কা মেরে ম্যাচ তখন নিয়ে যাচ্ছেন মুম্বইয়ের দিকে। তখনই মনে হয়েছিল, দিনটা আজ হয়তো শাহরুখের নাও হতে পারে। আর শেষ পর্যন্ত তা হয়ওনি।