প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :             এ সময় তার মানসিক প্রতিবন্ধী বড় বোন আয়তুননেছা তাকে উদ্দেশ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। সাঈদ বোনের গালিগালাজের প্রতিবাদ করলে আয়তুননেছা তাকে মারতে তেড়ে আসে।

 

 

 

 

 

মাদারীপুরের শিবচরে থানায় ছোট ভাই সাঈদ চৌকিদারের ছুরিকাঘাতে মৃত্যু হয়েছে মানসিকভাবে বিকারগ্রস্থ বড় বোনের। নিহতের নাম আয়তুননেছা (৩৫)।

 

 

 

 

 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে উপজেলার মাদবরচর ইউনিয়নের ছলুখার কান্দি গ্রামের মৃত আমজেদ চৌকিদারের ছেলে সাঈদ চৌকিদার বাড়ির উঠানে দাঁড়িয়ে ছুরি দিয়ে আম কেটে খাচ্ছিল।

 

 

 

 

এ সময় দুই ভাই বোনের ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে সাঈদের হাতে থাকা ছুরি আয়তুননেছার পেটে ঢুকে যায়।পরিবারের লোকজন আয়তুননেছাকে উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার পথে তার মৃত্যু হয়।

 

 

 

 

এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। নিহত আয়তুননেছা একই এলাকার মোশারফ তাইয়ানীর স্ত্রী।নিহত আয়তুননেছার মা জানান, সাঈদ বাড়ির উঠানে দাঁড়িয়ে ছুরি দিয়ে আম কেটে খাচ্ছিল।

 

 

 

 

 

এ সময় আয়তুননেছা বিনা কারণে সাঈদকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে করতে তার গলা চেপে ধরে। দুজনের মধ্যে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে আয়তুননেছার পেটে ছুরি ঢুকে যায়।

 

 

 

 

 

 

আয়তুননেছা দীর্ঘদিন ধরে মানসিকভাবে প্রতিবন্ধী।শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারী সার্জন ডা. আফানুর রহমান আদনান বলেন, নিহতের পেটে একটি মাত্র আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

 

 

 

 

 

 

হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।শিবচর থানার ওসি জাকির হোসেন বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। দোষীকে ধরতে অভিযান চলছে।