প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :           রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোডে ট্রেনের ধাক্কায় ষাটোর্ধ্ব এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। এসময় সাথে থাকা তার মেয়ে শেষ মুহূর্তে রেল লাইন থেকে লাফিয়ে বেঁচে গেছেন।

 

 

 

 

নিহত ওই নারীর নাম ফিরোজা বেগম। প্রাণে বেঁচে যাওয়া মেয়ের নাম নাজমা বেগম (৩৫)। তারা নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার গুতিয়াব গ্রামের বাসিন্দা।

 

 

 

 

 

আজ বুধবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে কমলাপুর থেকে ছেড়ে আসা একটি ট্রেনের ধাক্কায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

 

নাজমা বেগমের সাথে কথা বলে জানা যায়, বারডেমে মাকে ডাক্তার দেখাতে সকালে তারা ঢাকায় এসেছিলেন। এরপর বাসায় ফেরার জন্য রূপগঞ্জের কাঞ্চনে যাওয়ার বাস ধরতে কুড়িল বিশ্বরোডে আসেন তারা। সেখানে রেললাইন পার হওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

 

 

তবে এ ঘটনার কিছু স্থানীয় দোকানদার প্রত্যক্ষদর্শীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে ফিরোজা বেগমকে পেছনে নিয়ে রেললাইন ধরে খিলক্ষেতের দিকে হাঁটছিলেন নাজমা।

 

 

 

 

 

এসময় হঠাৎই তাদের পেছনে ট্রেনটি চলে আসলে নাজমা বুঝতে পেরে লাফিয়ে রেললাইন থেকে বেরিয়ে যান। কিন্তু বৃদ্ধা ফিরোজা শরীরের ভারে রেললাইন ছেড়ে বের হতে পারেননি। ফলে ট্রেনের ধাক্কায় মাথায় আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।