প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :       আমাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানের ব্যথাকে অধিকাংশ সময়েই আমরা তেমন কোনো গুরুত্বের চোখে দেখি না। অনেকেই সামান্য ব্যথায় ঘরোয়া চিকিৎসা করেন, যা একেবারেই উচিত নয়।এসব ব্যথাই হতে পারে অনেক বড় কোনো সমস্যার প্রাথমিক লক্ষণ! সামান্য অবহেলাই ডেকে আনতে পারে মৃত্যু! তাই ব্যথাকে অবহেলা করা উচিত নয়। শরীরের কোন কোন স্থানের ব্যথাকে অবহলো না করে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত তা জানিয়েছে জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট ‘বোল্ডস্কাই’।

 

 

 

 

 

 

১. দাঁতের মাড়ি ব্যথা: দাঁতের মাড়ি ব্যথা সেই বোঝে, যার এই ব্যথা হয়। মাড়ি ব্যথাকে অনেকেই ছোট করে দেখেন। মনে করেন, বিষণ্নতার কারণে এই ব্যথা হচ্ছে। বিষণ্নতার কারণেও অনেক সময় মাড়ি ব্যথা হয় এ কথা সত্যি। কিন্তু মাড়িতে টান পড়া এবং প্রায় সময় ব্যথা হার্টের সমস্যার কারণেও হতে পারে।২. পিরিয়ডের সময় অস্বাভাবিক ব্যথা: পিরিয়ডের সময় ব্যথা হওয়া খুব সাধারণ বিষয়। অনেক মেয়েরা ব্যথার ঔষধ খেয়ে এই ব্যথা নিরাময়ের চেষ্টা করে। কিন্তু ব্যথা তীব্র ও দীর্ঘস্থায়ী হওয়া অনেক সময় জরায়ু ক্যান্সারের লক্ষণ। তাই এই পরিস্থিতিতে ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়ার চেষ্টা করুন দ্রুত।

 

 

 

 

 

৩. তীব্র মাথা ব্যথা: মাথা ব্যথা খুব সাধারণ বিষয়। অতিরিক্ত চিন্তা করলে সাধারণত মাথা ব্যথা হয়। কিন্তু হঠাৎ যদি মাথায় অস্বাভাবিক ব্যথা ওঠে এবং মাথার ব্যথায় আপনি চোখে ঘোলা দেখতে শুরু করেন তাহলে বিষয়টিকে অবহেলা করা একেবারেই উচিত হবে না।মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, টিউমার ইত্যাদি কারণে এ ধরণের অস্বাভাবিক ব্যথা হতে পারে আপনার মাথায়। তাই সব সময় মাথা ব্যথা অবহেলা না করাই ভাল।৪. পায়ে ব্যথা: দীর্ঘ সময় হাঁটাহাঁটি করলে পায়ে ব্যথা হওয়া স্বাভাবিক। কিন্তু যদি দেখেন পায়ের ব্যথায় কোনোভাবেই কমছে না, তাহলে চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করুন। পায়ে দীর্ঘ সময় ডায়বেটিস রোগের অন্যতম লক্ষণ।

 

 

 

 

 

৫. পিঠের মাঝামাঝি ব্যথা: আপনার পিঠের মাঝামাঝি ব্যথা অনুভব করলে একদমই অবহেলা করবেন না। কারণ এই ব্যথা হতে পারে কিডনি সমস্যার লক্ষণ। কিডনিতে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ এবং ইউরিন ইনফেকশনের জন্য এ ধরণের ব্যথা হতে পারে আপনার।৬. পিঠ ব্যথা: অনেকেই কম-বেশি পিঠের ব্যথায় ভোগেন। বিশেষ করে বয়স্করা এই সমস্যার মুখোমুখি হয় বেশি। দীর্ঘ সময় বসে থাকলে, ভারী কোনো কিছু বহন করলে অনেক সময় পিঠের ব্যথা হয়।কিছু সময় পর তা চলেও যায়। কিন্তু যদি পিঠের ব্যথা দীর্ঘ সময় পর্যন্ত থাকে তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। অনেক সময় মেরুদণ্ডের সমস্যার কারণে পিঠের ব্যথা হতে পারে।৭. তলপেটে প্রচণ্ড ব্যথা: তলপেটের ব্যথাও সাধারণ ব্যথার মতোই। গ্যাসের সমস্যাজনিত কারণে অনেক সময় তলপেটে ব্যথা হয়। কিন্তু দীর্ঘ সময় ব্যথা অ্যাপেন্ডিসাইটিসের লক্ষণ হতে পারে।তাই দীর্ঘ সময় পেটের ব্যথা হলে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হোন।