প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    ঝিনাইদহে শারদীয় দুর্গোৎসবে প্রতিমা বিসর্জনের পর অতিরিক্ত মদ পান করে চার যুবক মারা গেছেন। যশোর ও কালীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। এছাড়া আরও দুইজন গুরুতর অসুস্থ হয়ে কালীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের পৃথক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

নিহতরা হলেন, কালীগঞ্জ উপজেলার কলেজ পাড়ার অখিল দাসের ছেলে মুন্না দাস (৩৫), ভাটপাড়া গ্রামের বিমল মিত্রের ছেলে শুভঙ্কর ওরফে টিটো কর্মকার (৪৫), বলিদা পাড়া গ্রামের কুমার বিমল বিশ্বাসের ছেলে বিকাশ বিশ্বাস (৩৫), কলেজ পাড়া মৃত বানচারামের পুত্র পিন্টু (৩০)।

 

 

 

অপর দিকে নিশ্চিন্তপুর গ্রামের নিমাই দাসের ছেলে তপন দাস (৩৮) ও একই গ্রামের অঘরচন্দ্র ছেলে নির্মল চন্দ্র গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কালীগঞ্জ থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

 

 

 

মুন্না দাসের ভাই অন্তর দাস জানান, দুর্গাপূজার উৎসবে অতিরিক্ত মদ পান করে অসুস্থ হয়ে পড়ে মুন্না। তাকে প্রথমে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। গেল রাতের দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় মুন্না।

 

 

 

 

 

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুছ আলী বলেন, প্রত্যেক পূজা মন্ডপ কমিটির সাথে মিটিং করে মদ সেবন না করার জন্য বলা হয়েছে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও সড়কে টহল জোরদার করা হয়েছে।