প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদে খেলার সময় কোচ টম মুডি মজা করেই কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমানকে ‘ফিজ’ নামে ডাকতেন। যেটা পরবর্তীতে তার ডাক নাম হয়ে গেল। ঠিক তেমনি ইমরুল কায়েসেরও একটি ডাক নাম ক্রিকেট পাড়ায় মুখে মুখে শোনা যায়। আর সেটা হলো ‘পটু’।

 

 

 

 

মুস্তাফিজের মতো পরিবার থেকে এই নাম দেওয়া না হলেও সতীর্থদের অনেকেই মজা করেই তাকে এই নামে ডাকেন। তা তার নামটা কিভাবে হলো? জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রবিবার মিরপুরে ওয়ানডে ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪ রানের ইনিংস খেলার পর ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে ইমরুল কায়েসকে এক সাংবাদিক সেই প্রশ্ন করে বসেন।

 

 

 

 

জবাবে ইমরুল বলেন, ঢাকা লিগে ভিক্টোরিয়া দলে খেলার সময় আমি এক খেলোয়াড়কে মজা করেই এই নামে ডাকতাম। পরে এটাই আমার ডাক নাম হয়ে গেছে কীভাবে বুঝলাম না!’

 

 

 

 

রসিকতা করতে করতে কখন পটু নামটা যোগ হয়েছে তাঁর সঙ্গে, সেটা জানেন না। তবে ইমরুল জানেন, পরিশ্রম করলে সেটা বৃথা যায় না। বাংলাদেশ জাতীয় দলে এক দশক ধরে খেলছেন। ৪ শতকের পাশাপাশি তার নামের পাশে ১৫টি অর্ধশতক রয়েছে।

 

 

 

 

তারপরও কেন জানি জাতীয় দলে বরাবরই আসা-যাওয়ার মধ্যে থাকেন ইমরুল। তবে কঠোর পরিশ্রম করলে যে আবারও ফেরা যায় সেটাও জানেন এই ওপেনার। আর এজন্য ইমরুল সব সময়ই আদর্শ হিসেবে মানেন তাঁর সতীর্থ মুশফিকুর রহিমকে।

 

 

 

 

ইমরুল বলেন, ‘কেউ যদি পরিশ্রম করে আমি বিশ্বাস করি সাফল্য অবশ্যই আসবে। মুশফিককে দেখে অনেক কিছু শিখি। সে কষ্ট করে বলেই আজকের মুশফিকুর রহিম হয়েছে। আমি এটা বিশ্বাস করি পরিশ্রম করলে সেটার ফল পাওয়া যায়।’