প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     যখন পরিচালক আলি আব্বাস জাফর ‘ভারত’ ছবিতে সালমান খানের বিপরীতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে নির্বাচন করেছিলেন, তখন ভক্তরা উচ্ছ্বসিত হয়েছিলেন। এবং কেন নয়? এক দশক ধরে সালমান-প্রিয়াঙ্কার রুপালি পর্দার জুটি খুবই জনপ্রিয়। কিন্তু ভক্তরা আহত হয়েছিলেন, শুটিং শুরুর মাত্র কয়েকদিন আগে যখন প্রিয়াঙ্কা ‘ভারত’ ছাড়ার ঘোষণা দেন। যদিও বিশেষ কারণ ছিল। মার্কিন গায়ক নিক জোনাসের সঙ্গে বাগদানের ‘অজুহাত’ দিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা।তখন থেকেই গুঞ্জন, প্রিয়াঙ্কার ওপর বেশ চটেছেন সুপারস্টার সালমান। বেশ কিছুদিন এ নিয়ে চুপচাপ থাকলেও পরে মুখ খোলেন সালমান খান। প্রিয়াঙ্কার ওপর তাঁর ‘রাগ’ আছে, এটা বোঝা না গেলেও স্পষ্ট বোঝা গিয়েছিল খুব একটা ‘সন্তুষ্ট’ নন তিনি।সে সময় খবর বেরিয়েছিল, সালমান-প্রিয়াঙ্কার ‘স্নায়ুযুদ্ধ’ চলছে! এর পর ‘ভারত’ ছবিতে যোগ দেন সালমানের সাবেক প্রেমিকা ক্যাটরিনা কাইফ। ভক্তরা সালমান-কাইফ জুটি নিয়ে আগ্রহ দেখানোর পর ধীরে ধীরে এ নিয়ে খবরও কমতে থাকে।

 

 

 

 

 

যাহোক, গত ১৮ আগস্ট নিক জোনাসের সঙ্গে বাগদান হয় প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার। শোনা যাচ্ছে, আগামী মাসেই রাজস্থানের মেহরনগড় দুর্গে নিক ও প্রিয়াঙ্কা রাজকীয় অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গাঁটছড়া বাঁধবেন। ১ ডিসেম্বর হবে তাঁদের বিয়ের মূল অনুষ্ঠান। তবে ২৯ নভেম্বর থেকে টানা তিন দিন চলবে সাড়ম্বর আয়োজন।এখন প্রশ্ন উঠেছে, বলিউড ভাইজান যোধপুরে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিয়েতে উপস্থিত থাকবেন তো? সেই ‘ক্ষত’ কি শুকিয়েছে?সালমানের পরিবারের সঙ্গে ‘কোয়ান্টিকো’ অভিনেত্রীর বেশ ভালোই সম্পর্ক। সালমানের বোন অর্পিতা খান শর্মা প্রিয়াঙ্কার বন্ধু। কিন্তু শোনা যাচ্ছে, সালমান সম্ভবত প্রিয়াঙ্কার বিয়েতে যাবেন না, অনেকে চেষ্টা করেও সালমানের রাগ জল করতে পারেননি!গত সপ্তাহে অর্পিতার স্বামী ‘লাভযাত্রী’ অভিনেতা আয়ুশ শর্মার জন্মদিন উদযাপিত হয়। সে অনুষ্ঠানে প্রিয়াঙ্কা ও তাঁর মা মধু চোপড়া ‘খানদান’ পরিবারকে বিয়ের দিন উপস্থিত থাকার কথা স্মরণ করিয়ে দেন। কিন্তু হুট করে ‘ভারত’ থেকে চলে যাওয়ায় প্রিয়াঙ্কাকে ক্ষমা করতে পারছেন না সালমান!

 

 

 

 

 

সংবাদমাধ্যম ডেক্কান ক্রনিকেলকে সালমানের এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু বলেছেন, ‘সালমান সত্যিই তাঁর (প্রিয়াঙ্কা) ওপর বিরক্ত। কেন সে তাঁকে (সালমান) খুঁজেছিল এবং ভারত ছবিতে অভিনয়ের জন্য তাঁর পরিবারও সহায়তা করেছিল কি শেষ মুহূর্তে চলে যাওয়ার জন্য? এখন সে ভাইয়ের সঙ্গে মনোমালিন্য দূর করার চেষ্টা করছে। গত সপ্তাহে সে তাঁর মায়ের সঙ্গে ভাইয়ের ভগ্নিপতি আয়ুশের জন্মদিনের পার্টিতে গিয়েছিল এবং বিয়েতে উপস্থিত থাকা নিশ্চিত করতে খান পরিবারকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছিল।’প্রিয়াঙ্কার বাগদানের দুদিন আগে সালমান খান বলেছিলেন, ‘আমি খুব খুশি তাঁর (প্রিয়াঙ্কা) জন্য। আমরা যদি আরো আগে জানতাম যে সে হলিউডের বড় সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছে, আমরা কখনোই তাঁকে থামাতে চাইতাম না। আমার শুটিং শুরু হয়েছে। একেবারে শেষ মুহূর্তে আমরা তাঁর সিদ্ধান্ত জেনেছি, তাঁর শিডিউলের মাত্র ১০ দিন আগে।’

 

 

 

 

সালমান আরো বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা বাসায় এসেছিল। আমি তাঁকে বলেছিলাম, ঠিক আছে, যদি না চাও, করো না। সে সময় আমরা অন্য কারণ জেনেছিলাম। সেটা বিয়ে হোক বা চলচ্চিত্র হোক, ভারতে বা আমার সঙ্গে তাঁর কাজ করার ইচ্ছে নেই; এটাই প্রধান কারণ। যদি সে সালমান খানের সঙ্গে কাজ করতে না চায়, ঠিক আছে; সে হলিউডের বড় তারকার সাথে কাজ করছে।’যাহোক, গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বন্ধুবান্ধব ও পরিবারের সঙ্গে ধুমধামে আয়োজিত হয় প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিবাহ-পূর্ব অনুষ্ঠান ব্রাইডাল শাওয়ার বা আইবুড়ো ভাত। আর ডিসেম্বরে ভারতীয় ঐতিহ্য মেনে মেহেদি, সংগীত ও বিবাহের অনুষ্ঠানাদি হবে। বলিউড ভাইজান সালমানের মন ততদিনে গলে কি না, তা দেখার জন্য ভক্তদের আরো অপেক্ষা করতে হবে!