প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      ‘অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন’ অনুষ্ঠানে গণমাধ্যমের সহযোগিতা চেয়েছে বিএনপি-গণফোরামসহ কয়েকটি দলের সমন্বয়ে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানের অভিজাত হোটেল লেক শোরে দেশের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যমের সম্পাদকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় ঐক্যফ্রন্ট এ সহযোগিতা চায়।সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের মধ্যে ড. কামাল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।

 

 

 

 

 

সাংবাদিকদের ড. কামাল বলেন, ‘সম্পাদকেরা বিভিন্ন ব্যাপারে তাদের মতামত তুলে ধরেছেন। আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। তারা বলেছেন, সরকারের যেমন কর্তব্য আছে, আমরা যারা নির্বাচন করতে যাচ্ছি, সেসব দলেরও কর্তব্য আছে পরিবেশ রক্ষা করার। অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন যেন হয়।’‘অতীতের অভিজ্ঞতার আলোকে সতর্ক থাকতে হবে, যেন জনগণ সত্যিকার অর্থে নির্ভয়ে স্বাধীনভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে এবং নির্বাচন যেন অবাধ এবং নিরপেক্ষ হয়। আজকের বৈঠক আমাদের জন্য খুব মূল্যবান বলে মনে করি। সরকারের যেসব বিষয় আমরা চিহ্নিত করেছি, সেসব ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে।’এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্যে সবরকমের সহযোগিতা আমরা চেয়েছি।’

 

 

 

 

বৈঠকে সম্পাদকদের মধ্যে অংশ নেন- নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, মানবজমিন সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, নিউএইজ সম্পাদক নুরুল কবীর, আমাদের সময় সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, সাপ্তাহিক বুধবার সম্পাদক আমির খসরু, সাপ্তাহিক সম্পাদক গোলাম মোর্তজা, ঢাকা ট্রিবিউন সম্পাদক জাফর সোবহান।এছাড়াও ছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিনের যুগ্ম-সম্পাদক আবু তাহের, এএফপি ঢাকা ব্যুরো চিফ শফিকুল আলম, রয়টার্সের ব্যুরো চিফ সিরাজুল ইসলাম কাদির, ইনকিলাবের সহকারী সম্পাদক মুন্সি আব্দুল মান্নান, বাংলাদেশের খবরের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সৈয়দ মেজবাহ উদ্দিন প্রমুখ।

 

 

 

 

 

বৈঠকের ফাঁকে আমাদের নতুন সময় সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান সাংবাদিকদের জানান, এক প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল জানিয়েছেন- জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হলে জোটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দল বসেই ‘প্রধানমন্ত্রী’ পদের জন্য নেতা ঠিক করবে।বিডিনিউজটোয়েন্টিফোর.কমের সম্পাদক তৌফিক ইমরাজ খালিদীর ওই প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল এমন উত্তর দিয়েছেন বলে নাইমুল ইসলাম জানালেও পরে বৈঠক থেকে বের হয়ে তৌফিক ইমরোজ খালিদী সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হলে কে প্রধানমন্ত্রী হবেন, আমি এ প্রশ্ন করলেও জবাব আমি পাইনি।