প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    মানুষের জীবনে বিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। জীবনে চলার পথে একজন সঙ্গী সবারই দরকার। যার সাথে সারাটা জীবন অতিবাহিত করার মাধ্যমে সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে নেয়ায় যায়। তাই প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্ক নারী-পুরুষের ক্ষেত্রে বিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। বিয়ে করার ক্ষেত্রে বিশেষ করে পুরুষেরা এক বা একাধিক বিয়ে করতে পারেন। ইসলামী বিধান অনুযায়ী, ভরণপোষণে সামর্থ্যবানরা চারটা পর্যন্ত বিয়ে করতে পারেন।

 

 

 

আর ইসলামের এমন বিধানের বাহিরে গিয়ে অনেকে ৪ জনের অধিক স্ত্রীও গ্রহণ করে থাকে। সেই রকমের একজন ব্যক্তির সন্ধ্যান মিলেছে নাইজেরিয়ায়। তার নাম মুহাম্মদ বেলো আবুবকর। বয়স ৯২ বছর। আর এই ৯২ বছরে তিনি ৯৭ স্ত্রী নিয়ে সুখের সংসার করছেন। কিন্তু তার একটা দুঃখ ১০টি বিয়ে টেকেনি। তিনি এখন পর্যন্ত বিয়ে করেছেন ১০৭টি। তাই তিনি আরও বিয়ে করে তার সেই কষ্ট দূর করতে চান।

 

 

 

 

৯৭ জন স্ত্রীকে সময় দিচ্ছেন সুন্দরভাবে। তার ইচ্ছা, যতদিন বাঁচবেন, ততদিন ধরে চালিয়ে যাবেন এই বৈবাহিক প্রক্রিয়া। মূলত, আবুবকর নাইজেরিয়ার বিদা প্রদেশের এক ধর্মীয় নেতা। ৯৭ জন স্ত্রী থাকার কারণে জগত-জোড়া ‘খ্যাতি’ রয়েছে। ‘খ্যাতিমান’ এই ধর্মীয় নেতা ঘোষণা দিয়েছেন ‘আরও বিয়ে’ করবেন তিনি।

 

 

 

 

আবুবকরকে নিয়ে দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টের বরাত দিয়ে ডেক্কান ক্রনিক্যাল এক খবরে জানিয়েছে, গোটা জীবনে আবুবকর বিয়ে করেছিলেন মোট ১০৭টি। তার মধ্যে ১০টি সম্পর্ক টেকেনি। বাদবাকি ৯৭ বউয়ের ভরণপোষণ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তবে এখানেই থেমে যেতে রাজি নন এই ধর্মীয় নেতা। তার আরও বউ লাগবে! সেজন্য যতদিন বাঁচবেন, ততদিন এই বৈবাহিক প্রক্রিয়া চালিয়ে যেতে চান তিনি।

 

 

 

 

ইসলামী বিধান অনুযায়ী, ভরণপোষণে সামর্থ্যবানরা চারটা পর্যন্ত বিয়ে করতে পারেন। কিন্তু তার ভাষ্য, কত জনকে বিয়ে করা যাবে, এ নিয়ে বাঁধাধরা কোনো বিধান নেই। ‘ঐশ্বরিক উদ্দেশ পুরণে’ খেয়ালখুশি মতো বিয়ে করাটা বিধান বহির্ভূত নয়! যারা আবুবকরের এই কাজের সমালোচনা করছেন, তারা ‘খুব ভুল’ করছেন বলেও জানিয়েছেন এই ধর্মীয় নেতা!