প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    আমি একজন মেডিকেল স্টুডেন্ট। এখন চতুর্থ বর্ষে আছি। আমার লাইফের খুব বাজে একটা ঘটনা সবসময়ই আমাকে আতঙ্কিত রাখে। সেই ভয়ে ভয়ে এখন মানসিক অবস্থা দিনদিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। পড়াশুনা আর কনটিনিউ করতে পারবো কিনা বুঝতে পারছি না।যখন ঘটনাটা ঘটে তখন আমি ইন্টার কেবল শেষ করেছি। আমার একটা ছেলের সাথে রিলেশন ছিল। রিলেশন হয়েছিল ইন্টার প্রথম বর্ষে। প্রথম দিকে দুজনই দুজনকে খুব ভালবাসতাম। পরে দেখি ওর পড়াশুনায় কোন মন নেই। উল্লেখ্য আমি খুব ভাল স্টুডেন্ট ছিলাম। আমরা সেইম এইজ ছিলাম। পরে ভাবি যে না এই রিলেশনের কোন রেজাল্ট নেই, তাই আমি সরে আসার ট্রাই করি। বাট ও দেয় না। সব সময়ই মানসিক অত্যাচার করতো।

 

 

 

 

যখন ঢাকায় চলে আসি মেডিকেল কোচিং করতে তখন একটা মেডিকেলের ভাইয়ার সাথে পরিচয় হয়। উনি আমাকে পছন্দ করতো, আমি করতাম না। এটা আবার প্রেমিক জেনে যায় কারণ উনি আমাকে প্রাইভেট পড়াতো। যদি আমি ওকে ছেড়ে দেই সেই ভয়ে একদিন ঢাকা চলে আসে আমার সাথে দেখা করে। উনার একটা মেসেজ দেখে ওর রাগ হয়ে যায়। তাই আমাকে জোর করে ওর বন্ধুর মেসে নিয়ে যায়। ওখানে ও জোর করে ফিজিক্যাল রিলেশন করতে চায় ,কিন্তু আমি করতে দেই না। সেখান থেকে চলে আসি। পরে ফাইনালি বলি ব্রেক আপ করে ফেলবো।

 

 

 

 

তখন ও আমাকে বলে যে সে সব ভিডিও করে রেখেছে, আমি চলে গেলে সব ছেড়ে দিবে। তখন বিভিন্ন কথা বলে ভয় দেখাতো। পরে ওর বাসায় বিচার দেই আর একেবারে যোগাযোগ বন্ধ করে দেই। পরে মেডিকেলে ভর্তি হয়ে যাই ঠিকই কিন্তু সবসময় আতঙ্কিত থাকি, কখন যেন ভিডিওটা ফাঁস হয়ে যায়।

 

 

 

 

ভয়ে ভয়ে ৩বছর কাটানোর পর যখন আর পেরে উঠলাম না তখন ওকে ফোন করি। বলি আসলে কি ভিডিও আছে, যদি থাকে তাহলে ব্যাক করো, আমি তোমাকে বিয়ে করবো। কিন্তু ও বলে এখন আর ও আমাকে চায় না, আর ওর কাছে কিছুই নেই। সবই ভয় দেখানোর জন্য বলেছে। ওর সাথে দেখা করি, ও কুরআন শরিফ ছুঁয়ে বলে কিছুই নেই। তবুও আজও বিশ্বাস করতে পারছি না আমি। সব সময়ই একটা ভয়ংকর ভবিষ্যৎ আমার পিছু ছাড়ে না। আমি পাগল হয়ে যাচ্ছি। আমি সুস্থ ভাবে বাঁচতে চাই । আমি কি করবো। প্লীজ হেল্প মি।

 

 

 

 

 

পরামর্শ : একটা ব্যাপার আমি বুঝলাম না আপু, সে তোমাকে জোর করে বন্ধুর মেসে নিয়ে গেল কীভাবে? একটা পাবলিক প্লেস থেকে তো কাউকে জোর করে নেয়া যায় না। আর তুমি বলছো যে অর সাথে শারীরিক সম্পর্ক হয়নি, সে জোরাজুরি করেছিল। তাহলে ভয় পাচ্ছো কেন? সে যদি ভিডিও করেও থাকে, তাহলে তো সেই ভিডিও ছেড়ে দিলে উলটো সে নিজেই বিপদে পড়বে।

 

 

 

 

আর আমার মনে হয় না কোন ভিডিও আছে। থাকলে এতদিন সেটা নিয়ে সে বসে থাকতো না, ছেড়েই দিত। আর যেহেতু সে তোমাকে আর চায় না, তাই চিন্তার কোন কারণ নেই। এই আতংকের ব্যাপারটি আসলে তোমার মানসিক সমস্যায় পরিণত হয়েছে। তুমি একজন ভাল চিকিৎসকের দ্বারা মানসিক স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করো। অবভেলা করবে না। সাহায্য নিলেই মানসিক অবস্থা ঠিক হয়ে যাবে।