প্রথমবার্তা, নিজস্ব প্রতিবেদন :    পৃথিবীর আয়ু বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বিপুল সম্ভাবনার দ্বার খুলে যাচ্ছে আমাদের সামনে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অগ্রগতি আমাদের শেষ পর্যন্ত কোন দিগন্তে নিয়ে যাবে সেটা ধারণার অতীত। এক পা দু পা করে আমরা সভ্যতার একেকটি স্তর পার হয়ে যাচ্ছি। প্রযুক্তি আমাদের অনেক কিছু শিখিয়েছে। জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবসেই আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হওয়া জরুরি প্রয়োজনে তাৎক্ষণিক সহায়তার হেল্পলাইন ৯৯৯। যেকোনো ফোন থেকে এই নম্বরে ফোন করলে পুলিশ, দমকল বাহিনী ও অ্যাম্বুলেন্স পাওয়া যাবে।

 

 

 

 

পুলিশ বিভাগ জানিয়েছে, তাদের দক্ষ ও প্রশিক্ষিত সদস্যরা ২৪ ঘণ্টা এই সেবা দিতে প্রস্তুত থাকবেন। কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কে গতবছর পরীক্ষা মূলকভাবে জাতীয় হেল্পডেক্স ৯৯৯ চালু করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। ৯৯৯ সেবার প্রশিক্ষিত প্রতিনিধিরা জরম্নরি মুহূর্তে প্রয়োজন অনুযায়ী ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ বা অ্যাম্বুলেন্স সেবা প্রদানকারীর সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দেবেন। এজন্য গত এক বছরে অপারেটরদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।

 

 

 

 

 

সেবা গ্রহণে যেসব বিষয় গুরুত্বপূর্ণ: সঠিক ও মানসম্মত সেবা দিতে এজেন্টরা কিছু প্রযুক্তিগত সহায়তা পেয়ে থাকেন। তবুও যখন কোনও নাগরিক ৯৯৯-এ কল করবেন বেশকিছু বিষয় খেয়াল রাখা প্রয়োজন। জরুরি সেবা পাওয়ার জন্য সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সহায়তাপ্রার্থীর ঠিকানা জানা। অপারেটরকে (এজেন্ট) যতটা সম্ভব সঠিক অবস্থান বলতে হবে। সাহায্যপ্রার্থীর সঠিক অবস্থান না জানা থাকলে পার্শ্ববর্তী বড় রাস্তা, বাজার বা মহাসড়কের নাম বলা যাবে।

 

 

 

 

 

 

আবার ৯৯৯ নম্বরে কল করলে সেখান থেকে কল ব্যাক করা হতে পারে জানিয়ে পুলিশ যে নম্বর থেকে কল করা হয়েছে, সেটি চালু রাখার পরামর্শ দিয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিস বা অ্যাম্বুলেন্স কর্তৃপক্ষও সাহায্যপ্রত্যাশীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে বলেও নম্বরটি চালু রাখা জরুরি।সাহায্যপ্রার্থী নিজে বিপদে পড়লে অসুবিধা হলে পাশের কাউকে দিয়ে কথা বলানোর পরামর্শও দেয়া হয়েছে ৯৯৯-এ সম্পৃক্ত কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে।

 

 

 

 

অ্যাম্বুলেন্স সেবা বিনামূল্যে নয়: ৯৯৯ নম্বরের মাধ্যমে যে অ্যাম্বুলেন্স সেবা পাওয়া যাবে, সেটা বিনামূল্যে দেয়া হবে না। অপারেটররা কেবল বিভিন্ন অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তাকে যোগাযোগ করিয়ে দেয়। ফলে অ্যাম্বুলেন্সের ধরন, গন্তব্যস্থল ইত্যাদি অনুযায়ী ভাড়ার পরিমাণ নির্ধারিত হয়। তাই অ্যাম্বুলেন্স সেবা চাইতে এসব তথ্য অপারেটরকে সঠিকভাবে জানাতে হবে। তবে ৯৯৯ থেকে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স সেবা প্রদান করা হবে না।

 

 

 

 

 

 

কখন কল করবেন? # কেউ যখন কোনো অপরাধ ঘটতে দেখবেন # প্রাণনাশের আশঙ্কা দেখা দিলে # কোনো হতাহতের ঘটনা চোখে পড়লে # কেউ কোনো দুর্ঘটনায় পড়লে # কোথাও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে # কারও জরুরিভাবে অ্যাম্বুলেন্সের প্রয়োজন হলে

 

 

 

 

 

তথ্যপ্রযুক্তি খাতের রপ্তানি আয় ২০২১ সালের মধ্যে পাঁচ বিলিয়ন ডলারে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য পূরণে এই পার্ক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে সরকারের আশা। সবশেষে বিজ্ঞানের আবিষ্কারের সঠিক ও উপযুক্ত ব্যবহারই পারে আমাদের একটি সুন্দর সমাজ উপহার দিতে |