প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় সোমবার সবার সম্মতিক্রমে পাস হয়েছে ছিটমহলে জমির মালিকানা সংক্রান্ত বিল। এই বিল পাসের মাধ্যমে ছিটমহলের বাসিন্দারা এবার জমির মালিকানা পাবেন।সোমবার ছিল পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশনের প্রথমদিন। ওই বিল পাস করানোর  জন্য বক্তব্য দিতে উঠে মুখ্যমন্ত্রী  মমতা ব্যানার্জি বলেন, আজ এক ঐতিহাসিক দিন।তিনি আরো বলেন, দেরি হয়েছে ঠিকই। কিন্তু এই বিলের মাধ্যমে ছিটমহলের সাবেক বাসিন্দারা ভারতীয় নাগরিক হওয়ার সব সুযোগ পাবেন।

 

 

 

 

 

ভারত এবং বাংলাদেশের দুই সরকার ২০১৫ সালের পহেলা আগস্ট ১৬২টি ছিটমহল আদান-প্রদান করে। একশ ১১টি ভারতের ছিটমহল বাংলাদেশের সাথে সংযুক্ত হয়, আর ৫১টি বাংলাদেশি ছিটমহল ভারতের সাথে সংযুক্ত হয়।এই আদান প্রদান হয়ে যাওয়ার পরে ভারতের সাবেক ছিটমহলের বাসিন্দাদের আশা ছিল,  ভারতের নাগরিক হওয়ার সব সুবিধা তারা পাবেন। কিন্তু সেই আশা পূরণ হয়নি। কারণ জমির মালিকানাও তাদের ভাগ্যে জোটেনি।গত মাসে কোচবিহারে এক বৈঠকে গিয়ে মমতা  জানতে পারেন সাবেক ছিটমহলের বাসিন্দাদের দুর্ভোগের কথা। তখন উনি ঘোষণা  দেন একটি অধ্যাদেশ জারী করে জমির মালিকানা  সাবেক  ছিটমহলবাসীদের প্রদান করা হবে।

 

 

 

 

 

জমির মালিকানা  প্রদানের  সাথে সাথে মমতা সোমবার বিধান সভায় ঘোষণা দেন যে, সাবেক ছিটমহলবাসীদের বাসস্থান তৈরির জন্য তার সরকার ১০০কোটি  ইন্ডিয়ান রুপি ব্যয় করেছেন। অন্যান্য সুযোগ  সুবিধার জন্য কেন্দ্র সরকারের কাছ থেকে এখনো চারশ ৬৯ কোটি  রুপি পায়নি বলে মন্তব্য করেন তিনি।