প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    তদন্তকার্যে সহযোগিতা করায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনের বিরুদ্ধে কোনো কারাদণ্ডের সুপারিশ করা হয়নি। ফ্লিন যুক্তরাষ্ট্রের গত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের অভিযোগ তদন্তের দায়িত্বে থাকা বিশেষ প্রসিকিউটর রবার্ট মুলারকে তদন্ত কাজে আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করেছেন বলে জানিয়েছেন।

 

 

 

 

 

এ বিষয়ে ফ্লিনের প্রশংসা করে আদালতের এক প্রতিবেদনে মুলার বলেন, ফ্লিন তার ও অন্যান্য ফেডারেল অপরাধ তদন্তে অত্যন্ত আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করেন। এসব ঘটনা তদন্তে তাকে ১৯ বার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। ২০১৬ সালের নভেম্বরের নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়লাভের কয়েক সপ্তাহ পর রাশিয়ার সাথে তার যোগাযোগের ব্যাপারে মিথ্যা বলার কথা তিনি গত বছর স্বীকার করেন।

 

 

 

 

 

স্পেশাল কাউন্সিল এ বছর চার বার ফ্লিনের সাজা মুলতবি করে বলেছে তিনি একজন গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী হবেন।ফ্লিনের আসন্ন সাজার বিষয়ে ওয়াশিংটনের ফেডারেল আদালতকে দেয়া স্মারকলিপিতে মুলার আরো বলেন, তার ‘মারাত্মক’ অপরাধ সত্ত্বেও তিন তারকা বিশিষ্ট অবসরপ্রাপ্ত এ জেনারেল ও পেন্টাগনের সাবেক গোয়েন্দা প্রধান সামরিক ও সরকারি সার্ভিসের অনেক ভালো রেকর্ড রয়েছে।