প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     টানা ১০ কার্যদিবস যাবৎ অব্যাহত উত্থানে পুঁজিবাজার। ভোটের পর বাজারে আরো চাঙ্গাভাব দেখা যাচ্ছে। নতুন বছরের প্রথম তিন কার্যদিবস শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক বেড়েছে ২০৫ পয়েন্ট। এদিকে বৃহস্পতিবার রেকর্ড লেনদেন হয়েছে ডিএসইতে।অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক বেড়েছে ১৭৩.৪৬ পয়েন্ট। দিনশেষে সিএসইতে ৭০ কোটি ২০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। ডিএসই ও সিএসই’র বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

 

 

 

 

 

 

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, বৃহস্পতিবার দিনশেষে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৪৫টি কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩০৩টির, দাম কমেছে ৩৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৯টি কোম্পানির।লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৯৪.০৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫৯০ পয়েন্টে।অপরদিকে, শরিয়াহ সূচক ২১.৫৫ ও ডিএসই-৩০ সূচক ২৯.০১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২৭১ ও ১৯৪১ পয়েন্টে।এদিন ডিএসইতে ৯২৪ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের কার্যদিবসে ডিএসইতে ৬৯৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছিল।

 

 

 

 

 

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে সায়হাম কটনের শেয়ার। এদিন কোম্পানির ৩৩ কোটি ৩১ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকো ৩১ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিবিএস ক্যাবলস।লেনদেনে এরপর রয়েছে- প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ইউনাইটেড পাওয়ার, জেএমআই সিরিঞ্জ, শের্ফাড ইন্ডাস্ট্রিজ, ইফাদ অটোস, খুলনা পাওয়ার ও ইনটেক।

 

 

 

 

 

 

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স এদিন ১৭৩.৪৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৩৬৭ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৭৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ২৩৭টির, কমেছে ২৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির দর। সিএসইতে আজ মোট ৭০ কোটি ২০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।