প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  জিম্বাবুয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের সুটকেসভর্তি এক লাখ ৩৭ হাজার মার্কিন ডলার চুরি হয়েছে।বাংলাদেশি মুদ্রায় যা এক কোটি ২৬ লাখ টাকা।শুধু চুরি করেই ক্ষান্ত নয়, এসব অর্থ দিয়ে বাড়ি, গাড়ি ও ব্যবসা শুরু করেছে চোররা।বুধবার এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

 

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, রাজধানী হারারের কাছে জিভিমবা এলাকায় মুগাবের গ্রামের বাড়ি। ওই বাড়ি থেকেই টাকাগুলো চুরি হয়। ওই বাড়ির চাবি ছিল কনস্তানসিয়া মুগাবে নামে তার এক আত্মীয়ের কাছে। অন্য আরেক সন্দেহভাজন একজন পরিচ্ছন্নকর্মী।জানুয়ারির শুরুর দিকে বা ১ ডিসেম্বর এই চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।চিনহয়ি ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রাষ্ট্রীয় কৌঁসুলি তেভেরাইশি জিনইয়েম্বা জানান, চুরির ঘটনার পর জোহানে মাপুরিসা একটি টয়োটা ক্যামরি গাড়ি এবং ২০ হাজার ডলারে একটি বাড়ি কেনেন। সেমোরে নেহেটেকওয়া চুরির টাকা দিয়ে একটি হোন্ডা এবং শুকর, গবাদি পশু কেনেন।

 

 

 

 

 

 

সন্দেহভাজন তিন অভিযুক্ত জামিনে ছাড়া পেয়েছেন। তবে চতুর্থ ব্যক্তি এখনো ধরা পড়েনি।দীর্ঘ ৩৭ বছর জিম্বাবুয়ের ক্ষমতায় ছিলেন রবার্ট মুগাবে। ২০১৭ সালে সেনাবাহিনীর মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত হন তিনি।ক্ষমতা ছাড়ার পর মুগাবে প্রায়ই অসুস্থ থাকেন। চিকিৎসার জন্য বেশ কয়েক মাস সিঙ্গাপুরে ছিলেন তিনি। চুরির সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত নয়।