প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ   কথায় বলে, ‘ভক্তিতে মুক্তি’। প্রিয় তারকার দেখা মেলাই যেন সকল মুক্তির অবসান ভক্তদের। আর যদি দেখা না মেলে? তাহলে চিরতরে পৃথিবী থেকে মুক্তি! এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ভারতের বেঙ্গালুরুতে।সম্প্রতি দক্ষিণী অভিনেতা যশ-এর এক অন্ধভক্ত তাঁর সঙ্গে দেখা করতে না পেরে আত্মহননের পথ বেছে নেয়। মৃত ব্যক্তির নাম রঘুরাম। তিনি বেঙ্গালুরুর দশরাহল্লি এলাকার বাসিন্দা।

 

 

 

 

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, কিছুদিন আগে যশের জন্মদিনে তাঁর বাড়ির সামনে যান ভক্ত রঘুরাম। কিন্তু সে সময় যশ বাড়িতে ছিলেন না। বাড়ির নিরাপত্তা রক্ষীদের কাছ থেকে যশের উপস্থিতি জানতে না পেরে ক্ষোভে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন ওই ব্যক্তি। নিরাপত্তারক্ষীরা কিছু বুঝে উঠার আগেই তাঁর শরীরের বেশীরভাগ অংশ পুড়ে যায়।

 

 

 

 

 

সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করে।ভক্তের এমন ঘটনায় হাসপাতালে ছুটে যান যশ। হতভম্ব যশ এতে বেশ ক্ষুব্ধ হন। এমন ভক্তির কোনো মানেই হয়না বলে মন্তব্য করেন তিনি। সে সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি বলেন, তাঁর এমন ভক্তের দরকার নেই, যাঁদের কাছে নিজের জীবনের কোনো মূল্য নেই।

 

 

 

 

প্রায়ই অন্ধভক্তদের বিড়ম্বনায় পড়তে শোনা যায় তারকাদের। কিছুদিন আগেও সুপারস্টার সালমান খানের এক ভক্ত সালমানের ফোন নম্বর না পেয়ে তাঁর দেহরক্ষীকে মেরে ফেলার হুমকি দেন।এদিকে গত ২০ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়া যশের ‘কেজিএফ’ ভারতের বক্স অফিসে কম্পন তুলছে। ইতিমধ্যে ছবিটি বিশ্বজুড়ে ২০০ কোটি রুপি আয় করেছে।

 

 

 

 

 

কান্নাড়া ছবি হওয়া সত্ত্বেও হিন্দি ভাষাভাষী মানুষের কাছে ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে ছবিটি। শুধুমাত্র হিন্দি ভার্সন থেকে কেজিএফ-এর আয় ৪০ কোটি ৩৯ লাখ রুপি।