প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  ভারতের হিন্দি ছবির ইতিহাসে বিশেষ জায়গা করে আছে ‘লাভ এন্ড গড’। এই একটি ছবি বানাতে গিয়ে আড়াই দশকের বেশি সময় লেগে যায়। নির্মাণের এত দীর্ঘ সময়ে মারা গিয়েছিলেন ছবির দুই নায়কও। এমনকি ছবিটি নির্মাণের মাঝপথে নিভে যায় পরিচালকের জীবন প্রদীপও।

 

 

 

 

বলিউডের সেই ছবিটির নাম ‘লাভ এন্ড গড’। ‘লাইলী মজনু’র বিখ্যাত আরবি প্রেম কাহিনী নিয়ে পরিচালক কে আসিফ ১৯৬৩ সালে ছবিটি নির্মাণের কাজ শুরু করেন। ছবিটিতে নায়কের চরিত্রে প্রথম অভিনয় শুরু করেন গুরু দত্ত। নায়িকা ছিলেন নিম্মি।

 

 

 

তবে ১৯৬৪ সালের ১০ অক্টোবর প্রয়াত হন ছবির নায়ক গুরু দত্ত। ফলে বন্ধ হয়ে যায় ছবির কাজ। পরিচালক কে আসিফ তাই ছবিটির জন্য আবারও নায়ক খোঁজা শুরু করেন। ১৯৭০ সালে নায়কের চরিত্রে সঞ্জীব কুমারকে রাজি করান আসিফ। দীর্ঘদিন পর আবারও ছবিটির শুটিং শুরু হয়।

 

 

 

 

 

 

অবশ্য এর পরের বছরই অর্থাৎ ১৯৭১ সালের ৯ মার্চ মারা যান ছবির পরিচালক কে আসিফ নিজেই। ফলে আবারও অনিশ্চয়তার মুখে পড়ে ছবিটির ভবিষ্যত। প্রায় ১৫ বছর পর পরিচালকের স্ত্রী আখতার আসিফ ‘লভ অ্যান্ড গড’ ছবিটির কাজ শেষ করতে উদ্যোগী হন।

 

 

 

 

 

প্রযোজক, পরিচালক ও পরিবেশক কে সি বোকাড়িয়ার সহযোগিতায় শুট হওয়া ভিডিও নিয়ে আবারও পোস্ট প্রোডাকশন শুরু করেন আখতার আসিফ। তবে ছবিটি মুক্তি পাওয়ার আগেই ১৯৮৫ সালে মারা যান ছবির নায়ক সঞ্জীব কুমার।ছবির কাজ শুরু হওয়ার প্রায় ২৩ বছর পর ১৯৮৬ সালে অবশেষে মুক্তি পায় ‘লাভ এন্ড গড’।