প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ   জাপানের একটি মাছের বাজারে একটি টুনা মাছের দাম উঠলো ৫ লাখ পাউন্ড! বাংলাদেশি টাকায় প্রায় চার কোটি চুরাশি লাখ টাকার এই মাছটি নিলামে তোলা হয়েছিল জাপানের শুকিজি মাছ বাজারে। একজন ধনাঢ্য রেস্টুরেন্ট মালিক এটি কিনে নিয়ে যান। এই দামি টুনা মাছটির ওজন ছিল ২১২ কেজি!

 

 

 

 

নতুন বছরে শুকিজি মাছ বাজারে সেই নিলাম ডাকা হয়। নতুন বছরে শুভ লক্ষণের প্রতীক হিসেবে ধরা এই নিলামে সবচেয়ে বড় টুনা মাছটির নিলাম শুরু হয়। নিলামে সর্বোচ্চ দাম ৭২ মিলিয়ন জাপানি ইয়েন দিয়ে মাছটি কিনে নেন কিওশি কিমুরা নামে এক জাপানি ব্যবসায়ী। কিওশি কিমুরা ‘কিওমুরা কোর’ এর প্রেসিডেন্ট। তিনি ‘সুশি যানমাই’ নামে একটি রেস্টুরেন্ট চেইনেরও মালিক।

 

 

 

এ নিয়ে তিনি টানা ছয়বছর ধরে নিলামে জয়ী হলেন। গত বছরও ১৪ মিলিয়ন জাপানি ইয়েন দিয়ে সর্বোচ্চ নিলাম জিতে নিয়েছিলেন সেই জাপানি ব্যবসায়ী। এর আগে ২০১৩ তে ১৫৫ মিলিয়ন জাপানি ইয়েন দিয়ে নিলাম জিতেছিলেন তিনি!

এবার বাংলাদেশী টাকায় প্রায় চার কোটি চুরাশি লাখ টাকার টুনা মাছটি কিনে নেন জাপানি ভদ্রলোক!জাপানের উত্তর উপকূল থেকে ধরা মাছটি নিয়ে ক্যামেরার সামনে পোজ দিতে দেখা যাচ্ছে কিওশি কিমুরাকে! অবশ্যই তিনি বেশ খুশি এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। পকেট থেকে অনেক অর্থ গচ্ছা গেলেও এটা যে অন্যভাবে পুশিয়ে দেবে সেটা বলাই বাহুল্য!

 

 

 

 

 

মাছটির অংশবিশেষ খেতে ক্রেতারা নিশ্চয়ই হুমড়ি খেয়ে পড়বে। কৈয়ের তেলে কৈ ভাজার মতো মাছ বিক্রি করেই মাছের টাকা চলে আসবে! এছাড়া দেশি বিদেশি গণমাধ্যমে যে তার নামও চলে গেছে সেটা বলাই বাহুল্য! টেলিগ্রাফের মতো বিশ্বখ্যাত পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে সে বৃত্তান্ত। প্রতিষ্ঠানের পরিচিতি বা ব্রান্ডিং যে কত হয়েছে সেটা মার্কেটিং এক্সপার্ট ও ঝানু ব্যবসায়ীরা ভালো বলতে পারবে! সূত্র: টেলিগ্রাফ