প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ   গত বছরে জানুয়ারিতে সুপার ব্লাড মুন বা রক্তাভ চাঁদ দেখা দেয়ার এক বছরের মাথাতেই আবারও সোমবার (২১ জানুয়ারি) ঘটবে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ বা ‘সুপার ব্লাড মুন’।বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ৩৬ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে পূর্ণগ্রাসে দৃশ্যমান হবে এই মহাজাগতিক উপগ্রহ। চন্দ্রগ্রহণটি শেষ হবে দুপুর ১টা ৪৮ মিনিটে। আর পুরোপুরিভাবে চন্দ্রগ্রহণ হবে ১১টা ১২ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে।

 

 

 

 

তবে বাংলাদেশ বা এশিয়ার কোনো দেশ থেকে এ দৃশ্য দেখা যাবে না।

এর পরে আবার ২০২১ সালের ২৬ জুন দেখা যাবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ। ২০১৮ সালের ২৭ জুলাই শেষ পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা গিয়েছিল।চাঁদ ও সূর্যের সাথে এক সরলরেখায় পৃথিবী চলে এলে চন্দ্রগ্রহণ হয়। তখন সূর্যের আলো পৃথিবীতে আটকে গিয়ে আর চাঁদে পৌঁছাতে পারে না। ফলে চন্দ্রগ্রহণ হয়।
চন্দ্রগ্রহণের সময় চাঁদ থেকে একটি লাল আভা বের হবে।

 

 

 

 

পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে প্রতিসারিত আলো চাঁদের অন্ধকার জায়গাতে গিয়ে পড়ার জন্য এই লাল আভা দেখা যাবে।

নীল ও বেগুনী রঙের থেকে লাল আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য বেশি ছড়িয়ে পড়ে বলেই চাঁদকে লাল দেখতে হবে। এই মহাজাগতিক ঘটনার নামই ‘সুপার ব্লাড মুন’।

পূর্ব আফ্রিকা ও পূর্ব ইউরোপ থেকে এই গ্রহণের শুরু দেখা যাবে। পূর্ণগ্রাস গ্রহণ ৬২ মিনিট ধরে চললেও সম্পূর্ণ গ্রহণটি চলবে ৩ ঘণ্টা ৩০ মিনিট ধরে।আমেরিকা, পশ্চিম ইউরোপ আর আফ্রিকা থেকে এই ঘটনা দেখা যাবে। ওই দিন পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের সময় ‘সুপার ব্লাড মুন’ দেখা যাবে।আগে ২০১৮ সালের ২৭ জুলাই শেষ পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা গিয়েছিল।