প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  ভারতের কেরালার আলাপুজহা জেলার পেরুমবালম গ্রামের চোদ্দ বছরের ছেলে অর্জুন। যে কিনা প্রতিদিন তিন কিলোমিটার নদী সাঁতরে স্কুলে যায়।

 

 

 

 

 

কারণ অর্জুনের বাড়ির পাশে যে নদী তা পারাপারে কেবলই রয়েছে কয়েকটি ছোট নৌকা। যাতে সময়মত বেশি লোক পারাপারের সুযোগ নেই। এছাড়া নৌকা করে নদী পার হতে লেগে যায় ঘণ্টা দেড়েক।

 

 

 

 

এইরূপ বাস্তবতায় একটা সেতুর দাবিতে অর্জুন নদীতে দীর্ঘ সাঁতার দিয়েই স্কুলে যাওয়া শুরু করে! নদী সাঁতরিয়ে অর্জুনের স্কুলে যাওয়ার এই খবর জানাজানি হতেই নড়েচড়ে বসে স্কুলের শিক্ষকরা।

 

 

 

 

 

সেই সাথে স্থানীয় প্রশাসন কথা দেয় নদীর উপরে সাতশো মিটার লম্বা একটি সেতু বানিয়ে দেওয়া হবে। গত ২৫ বছর ধরে অর্জুনের এলাকার মানুষ নদীর ওপর একটি সেতুর যে দাবি জানাচ্ছিল প্রশাসনের কাছে অবশেষে অর্জুনের জীবনবাজি রাখা লড়াইয়ে সে দাবীর পূরণ হতে যাচ্ছে।