প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ   গাঁজা তৈরি হবে ওষুধ। আর তাতেই প্রশমিত হবে ক্যান্সারের যন্ত্রণা কিংবা এপিলেপ্সি। এমনই আশার আলো দেখাচ্ছেন ভারতীয় বিজ্ঞানীরা। আগামী এক বছরের মধ্যে সেই ওষুধ তৈরি করবে বলে জানাচ্ছে কাউন্সিল ফর সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ। আপাতত অ্যান্ডভান্স স্টেজের ট্রায়াল চলছে বলে জানা গিয়েছে।যে ক্যানাবিস বা গাঁজা ড্রাগ হিসেবেও ব্যবহার করা হয় সেই গাঁজা থেকে ওষুধ তৈরির নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও বিজ্ঞানীরা কিন্তু আশ্বাস দিচ্ছেন সত্যিই মিলবে সুফল।

 

 

 

 

জানা যাচ্ছে, দুটি নতুন ওষুধ আসতে চলেছে, যা বর্তমানে ব্যবহৃত ওষুধের তুলনায় অনেক বেশি কার্যকর হবে। যেমন বর্তমানে মরফিন যন্ত্রণা উপশমের জন্য ব্যবহার করা হয়। কিন্তু তার কিছু কুফল রয়েছে। গাঁজার ক্ষেত্রে সেটাই নেই। এছাড়া কেমোথেরাপি চললে যেসব শারীরিক অসুবিধা হয়, সেগুলির ক্ষেত্রেও কার্যকর হবে এই নতুন ওষুধ।

 

 

দিল্লির এইমসে প্রথম লঞ্চ করা হবে এই ওষুধ। আপাতত টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে চলছে গবেষণা।দুটি ওষুধেরই মূল উপাদান হবে ‘ক্যানাবিডিয়ল।’ ক্যানাবিস গাছ থেকে এই উপাদান পাওয়া যায়। এটি নন-সাইকোঅ্যাকটিভ। অর্থাৎ গাঁজার মত এর থেকে মানসিক কোনও এফেক্ট পড়বে না। এই ধরনের ওষুধ ইউরোপ-আমেরিকাতে ব্যবহার হয়। কিন্তু, ভারতে তৈরি হলে, খরচ কমে যাবে অনেকটাই।

 

 

 

 

কাউন্সিল ফর সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ-এর ডিরেক্টর রাম বিশ্বকর্মা জানিয়েছেন, ”ক্যানাবিস আসলে খুবই উপকারী। তবে এটা নিয়ে কিছু ভুল ধারনা রয়েছে। এটির অপব্যবহার করা হয়ে থাকে।” এই ওষুধ যেহেতু ভারতে তৈরি হবে, তাই এর দামও মানুষের সাধ্যের মধ্যে থাকবে বলেই জানিয়েছেন তিনি।