প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ    দেশবাসী আমাদের রাস্তায় দেখতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি নেতা ডা. জাফরুল্লাহ। তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ঘরের ভেতরে হাতিঘোড়া মারা সহজ। যদি পারেন, এখানে যারা এসেছেন তারা যদি ওখানে থাকেন আমি সুস্থ না, আমিও আপনাদের সঙ্গে থাকবো।

 

 

 

 

আজ শুক্রবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের মিলনায়তনে খালেদা জিয়ার কারাবন্দিত্বের এক বছর উপলক্ষে তার মুক্তির দাবিতে বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি আন্দোলনের নতুন প্রস্তাব রাখেন।তিনি বলেন, ‘মাসের আটদিন চলে গেছে, ১৮ দিন আছে। আগামীকাল ঢাকার ১০০ ওয়ার্ডের মহিলা দলের দশজন করে এক হাজার জন বিকেলে প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান ধর্মঘট করে খোদার কাছে মোনাজাত করে বলবেন, জালেমের হাত থেকে রক্ষা করো, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করো।’

 

 

 

 

 

 

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, পরের দিন ছাত্রদলের এক হাজার জন সারাদিন অবস্থান করে একই প্রক্রিয়ায় খোদার কাছে মোনাজাত করবেন। তারপরে বিএনপির জাতীয় কমিটি, যাদের খালেদা জিয়া মনোনয়ন দিয়েছেন যাদের জীবনকে সুগম করেছেন সেই সুখের পায়রাগুলি, যারা লুকিয়ে-চুকিয়ে বেড়াচ্ছেন তাদের ধরে এনে হাজির করেন। তারাও আধাবেলা ওই প্রেসক্লাবের সামনে বসে থেকে একই প্রক্রিয়ায় মোনাজাত করেন।

 

 

 

 

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন, অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, আব্দুল মান্নান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভুইয়া জুয়েল, মহিলা দলের যুগ্ম-সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম খান নাসিম, যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান।