প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  নিউজিল্যান্ডে সাকিবের বিকল্প কে হবেন? ক্রিকেট পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জানিয়েছেন কাল (আজ) জানিয়ে দিবেন কে যাচ্ছেন সাকিবের বিকল্প হিসেবে। তিনি বলেন, ‘আমরা এখনো সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। নিউজিল্যান্ডে প্রধান কোচ আছেন, অধিনায়ক মাশরাফিও সেখানে। তারা হয়তো একটা মতামত জানাবেন। সেটিও আমাদের জানতে হবে। আমি আশা করছি কালই জানিয়ে দিতে পারবো যে সাকিবের পরিবর্তে আসলে দলে কাকে নেয়া হচ্ছে।’

 

 

 

 

ওয়ানডে দলে সাকিবের বিকল্প নাও লাগতে পারে। কারণ টেস্ট দলের সদস্য মুমিনুল হক সেখানে আছেন যদি একজন ব্যাটসম্যান প্রয়োজন হয় তাহলে তাকে নেয়া যেতে পারে। আর স্পিন বোলিংয়ের অভাব পূরণের জন্য হয়তো তাইজুলকে নেয়া হতে পারে।

 

 

 

 

 

তবে নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে তাইজুলের স্পিন ওয়ানডেতে কতটা কার্যকর হবে তা নিয়ে রয়েছে প্রশ্ন। তবে টেস্ট দলের কথা ভেবে হয়তো তাইজুলকে পাঠানো হতে পারে। গেল বছরে দেশের হয়ে ৭ টেস্টে তার শিকার ছিল ৪৩ উইকেট। যদিও তাইজুলকে উপমহাদেশের বাইরে টেস্ট বা ওয়ানডে দলে রাখা হয় না। কারণ হিসেবে বলা হয় তাইজুলের স্পিন নাকি সেখানে কার্যকর নয়।

 

 

 

 

অথচ ওয়ানডে অভিষেক ম্যাচে হ্যাটট্রিক করে গড়েছেন বিরল ইতিহাস। অন্যদিকে ২৩ টেস্টের মধ্যে ৬টি খেলেছেন দেশের বাইরে। যেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজে ৩টি ও দক্ষিণ আফ্রিকাতে ১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। বাকি দুটি ভারত ও শ্রীলঙ্কাতে। তার ৯৭ উইকেটের মধ্যে ১৬টিই এসেছে দেশের বাইরে। তার দলে আসার বিষয়ে আকরাম খান অবশ্য কিছুই বলতে চাননি। তিনি বলেন, এখনো ঠিক হয়নি।

 

 

 

 

নিউজিল্যান্ডে টিম ম্যানেজমেন্টের মতামত নিয়েই জানাবো। তারা তাইজুলকে চাইলে বিবেচনা করতেই হবে। ২৩ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে তাইজুলের বোলিং গড় ৩০.৬৫। বল হাতে ইনিংসে সেরা নৈপুন্য ৮/৩৯। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০১৪তে ঢাকা টেস্টে এমন নৈপুন্য দেখাল তাইজুল। ক্যারিয়ারে মাত্রই চারটি ওয়ানডে খেলেছেন এ বাহতি স্পিনার। এদিকে সাকিবের বিকল্প হিসেবে তাইজুলের পাশাপাশি ইমরুল কায়েসের নামও আলোচনায় আছে।