প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  রাজনীতিতে প্রিয়াংকা গান্ধী ভদ্রের আনুষ্ঠানিক অভিষেক হওয়ার পর প্রথম রোড শো করছেন আজ লক্ষ্ণৌতে। আজ এ রোডশো উপলক্ষে লক্ষ্ণৌকে সাজানো হয়েছে ভিন্ন আঙ্গিকে। কংগ্রেস সমর্থকদের মধ্যে অন্য এক জোয়ার।

 

 

 

 

 

তাদের বহুদিনের প্রত্যাশা প্রিয়াংকা আসছেন নেত্রী হিসেবে। তার সঙ্গে থাকছেন কংগ্রেস সভাপতি ও প্রিয়াংকার ভাই রাহুল গান্ধী। সহজভাবে বললে বলা যায়, প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর পুরো উত্তরসুরি, ঐতিহ্যবাহী গান্ধী পরিবারের উত্তরসুরি এই দু’জনের আগমনে লক্ষ্ণৌ যেন নবযৌবন লাভ করেছে।

 

 

 

 

প্রিয়াংকার সঙ্গে রাহুল গান্ধীর এই সফরকে নিশ্চিত করেছেন উত্তর প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সবাপতি রাজ বাব্বার। তিনি বলেছেন, লক্ষ্ণৌতে এটাই কোনো প্রথম রাজনৈতিক র‌্যালি, যেখানে দুই ভাইবোন অংশ নিচ্ছেন।অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছে, সাধারণ অন্য কোনো দিনে রাত আটটায় উত্তর প্রদেম কংগ্রেস অফিসের বাতি নিভে যায়।

 

 

 

 

 

 

 

কিন্তু প্রিয়াংকার সফরের ঘোষণা হওয়ার পর থেকে ওই অফিস ও অফিস চত্বরে বাতি জ্বলছে ২৪ ঘন্টা। এর অর্থ নেতাকর্মীরা ঘুমহীন প্রস্তুতি নিয়েছেন। ওই অফিসে কংগ্রেসের উচ্চ পর্যায়ের নেতাদের বৈঠক হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

তাতে উপস্থিত ছিলেন উত্তরাখন্ডের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী হরিষ রাওয়াত, ইউপিএ সরকারের সাবেক মন্ত্রী মুকুল ওয়াসনিক, পিএল পুনিয়া, রাজিব শুকলা, জিতিন প্রসাদ ও প্রমোদ তিওয়ারি। রুদ্ধদ্বার ওই বৈঠক হয় উত্তর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রাজ বাব্বারের সঙ্গে।