প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ   ঘোষণা করা হয়েছে আগামী ১১ মার্চ অনুষ্ঠেয় ডাকসু নির্বাচনের তফসিল । বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলকে নির্দেশ দিয়েছেন নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার জন্য তারেক জিয়া। টেলিফোনে সিনিয়র ছাত্রদলের নেতাদের তিনি এ নির্দেশ দিয়েছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

 

 

 

 

গত সপ্তাহে ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ঢাবি উপাচার্যের কাছে ডাকসু নির্বাচন অন্তত তিন মাস পেছানো, হলে সহাবস্থান, ৩০ বছর বয়সসীমা উঠিয়ে নেয়াসহ সাত দফা দাবিতে স্মারকলিপি দেয়া হয়। এসকল দাবিদাওয়া অর্জন করা ছাড়া নির্বাচনে অংশ না নেয়ার পক্ষে মত দেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া।

 

 

 

 

তবে বিএনপির একটি সূত্র বলছে, ছাত্রদলের নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্তের মূল কারণ হচ্ছে প্রার্থিতার সংকট। ছাত্রদলের নেতৃত্বে যারা আছেন তারা খসড়া ভোটার তালিকা অনুযায়ী ভোটার না। তাদের অনেকেই নিয়মিত ছাত্র নয় এবং অনেকের বয়সই ৩০ বছরের উপরে। ফলে ভিপি ও জিএস পদে কাকে মনোনয়ন দেবে তা নিয়ে সংকটে পড়েছে ছাত্রদল।

 

 

 

 

 

বিএনপির নীতিনির্ধারকরা মনে করছেন, এই অবস্থায় ডাকসু নির্বাচনে প্রার্থিতা দিলে ছাত্রদলের মধ্যে বিভক্তি তৈরি হতে পারে। দলীয় কোন্দলে দল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কাও করছেন তারা। সেজন্য ডাকসু নির্বাচনে না যাওয়ার পক্ষেই তারা মতামত দিয়েছেন। সুত্র: বাংলা ইনসাইডার