প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: দিল্লি ক্যাপিটালসের উপদেষ্টা পদে সৌরভ গাঙ্গুলি যোগ দেওয়ার পর তিনজন ক্রিকেট সমর্থক  বিসিসিআই-এর কাছে অভিযোগ জানিয়েছিল, এতে কনফ্লিক্ট অফ ইন্টারেস্ট-এর আওতায় পড়বেন তিনি। সেই অনুযায়ী বিসিসিএর ন্যায়পাল ডিকে জেইন সৌরভের কাছে বিষয়টির বৈধতা সম্পর্কে জানতে চান।

 

 

 

তারই জবাব দিয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। তিনি জানিয়ে দেন, এখানে কোনো স্বার্থের সংঘাতের সমস্যা হবে না। একই সঙ্গে সৌরভ গাঙ্গুলি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (CAB) প্রেসিডেন্টও। যে কারণে কনফ্লিক্ট অব ইনটারেস্টের প্রশ্ন উঠছিল। সৌরভ গাঙ্গুলি পিটিআইকে জানিয়েছেন, তিনি ৬ এপ্রিল তাঁর পরিস্থিতির বিস্তারিত জানিয়ে বিচারপতি জৈনকে উত্তর দিয়েছেন।

 

 

 

 

পিটিআই-এর কাছে খবর অনুযায়ী সৌরভ চিঠিতে লিখেছেন, এক্ষেত্রে কোনও সরাসরি বা পরোক্ষভাবে স্বার্থ নেই, কোনও আপোষ, ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব। প্রাক্তন অধিনায়ক জানান, তিনি আইপিএল-এর কোনও কমিটির অংশ নন।

 

 

 

সৌরভ বলেন, এই মুহূর্তে আমি বিসিসিআই-এর কোনও পদে নেই। আমি বিসিসিআই-এর অ্যাপেক্স কাউন্সিলের সদস্য নই। বিসিসিআই-এর কোনও ক্রিকেট কমিটিতে নেই আমি। আমি চলতি আইপিএল-এর কোনও কমিটিতে যুক্ত নই। অতীতে আমি বিসিসিআই-এর টেকনিক্যাল কমিটি, আইপিএল টেকনিক্যাল কমিটি ও আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সঙ্গে যুক্ত ছিলাম। এগুলো থেকে আমি নিজেকে সরিয়ে নিয়েছি। আমি কোনও কমিটিতে আর নেই,জানান সৌরভ।

 

 

 

 

সৌরভ এও জানিয়েছেন, তিনি কোনওভাবে আইপিএল-এর কলকাতা দলের সঙ্গে যুক্ত নন। তিনি লিখেছেন, কলকাতা নাইট রাইডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজি রেড চিলিজ এনটারটেইনমেন্টের অংশ। এটি একটি সংস্থা। আমি কোনওভাবে এই সংস্থার শেয়ারহোল্ডার নই, ডিরেক্টরও নই। কোনও যোগসূত্র নেই এই সংস্থার সঙ্গে।

 

 

 

 

আইপিএল-এর শুরুতেই পশ্চিমবঙ্গের তিন ক্রিকেট ভক্ত রঞ্জিত শীল, অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় ও ভাস্বতী সান্তুয়া আলাদা আলাদা করে ডিকে জৈনের কাছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দিল্লি দলে যোগ দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। কারন তিনি সিএবির প্রেসিডেন্ট।

 

 

 

 

কলকাতায় দিল্লির ম্যাচ ১২ এপ্রিল। তাদের মতে, তিনি সিএবির প্রেসিডেন্ড হওয়ায় ইডেনের কিউরেটরদের উপর তাঁর নিয়ন্ত্রণ থাকবে। এ বার বাইরের কিউরেটরদের দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। সূত্র- এনডিটিভি