প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:   ‘শুটিং শেষ হওয়ার পর আমি আমার ঘরে ফেরার জন্য লিফটে উঠি। লিফটে আমার সাথে আরও এক ব্যক্তি উঠেছিল। সেই ব্যক্তিও আমার সঙ্গে একই ফিল্মে কাজ করছিলেন, কিন্তু আমাদের মধ্যে তখন তেমন কথা হয়নি। কথা বলার প্রয়োজনও পড়েনি আমার।লিফটে হঠাৎ করেই ওই ব্যক্তি আমাকে বলেন, ‘আমার জানার দরকার রাতে কী কোনোভাবে আমাকে তোমার প্রয়োজন হতে পারে? মধ্যরাতে এসে আমি তোমার পিঠে হাত বুলিয়ে দিতে পারি।’ কাস্টিং কাউচের কথা বলতে গিয়ে এভাবেই নিজের জীবনের এক ভয়ানক অভিজ্ঞতার কথা বলছিলেন বলিউড অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তে।

 

 

 

 

বেশ কিছুদিন ধরে গোটা বলিউডে ‘মি টু’ ঝড় আছড়ে পড়েছে। বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত এ নিয়ে মুখ খুললে পরবর্তীতে তার সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন আরও অনেকে। এবার সে তালিকায় যোগ হলেন রাধিকা আপ্তে।রাধিকা বলেন, ‘সেদিন আমি রুমে ঢুকে যাওয়ার পর মাঝরাতে এসে ওই ব্যক্তি আমার দরজায় ধাক্কাতে থাকেন। আমি দরজা খুলিনি। খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম তখন। বাইরে থেকে তিনি বলছিলেন, একবার দরজা খোলো, সারা জীবন এই রাত তুমি ভুলবে না। আমি কোনো আওয়াজ করি নি। কিছুক্ষণ পর চলে যায় লোকটা। জীবনে আর কখনো দেখা হয়নি তার সঙ্গে আমার।’

 

 

 

 

 

তিনি আরও বলেন, ‘ওই ছবির শুটিং সেটের পরিবেশ অনেকটাই স্বাভাবিক ছিল। ওই রাতের ঘটনার কথা পরে আমি ছবির পরিচালককে জানিয়েছিলাম, তিনি ওই ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলেন। পরে পরিচালক আমায় জানিয়েছিলেন, আসলে ওই ব্যক্তি এ ধরনের পরিবেশেই অভ্যস্ত, তাই ওর পক্ষে বোঝা সম্ভব হয়নি যে এটা আমার কাছে খুবই অস্বস্তিকর, অপমানজনক ছিল।’কাস্টিং কাউচের ঘটনা আটকানোর জন্য শুধু নারীরাই নয়, পুরষদেরও বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলা দরকার। এমনটাই মনে করেন এই অভিনেত্রী।