প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, মাথা উঁচু করে নিজ পায়ে দাঁড়ানো স্বয়ংসম্পূর্ণ বাংলাদেশ বিএনপি চায়নি। কারণ বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ হলে বিদেশি সাহায্য সহযোগিতা পাবে না। তাই তারা একটি অকার্যকর রাষ্ট্র চেয়েছিল।

 

 

 

 

আজ বুধবার সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের উদ্যোগে ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বর্তমান বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

 

 

 

 

মন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সর্বক্ষেত্রে রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। তার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ফলেই বঙ্গবন্ধুর হত্যা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্ভব হয়েছে। বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে যারা ছিল তাদের বিচার এখন সময়ের দাবি। জামায়াত বিহীন সংসদ এটাও শেখ হাসিনার জন্যই সম্ভব হয়েছে।

 

 

 

 

এ সময় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী বলেন, স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর সকল প্রকার পরাশক্তির রক্তচক্ষুকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন প্রধানমন্ত্রী। ৭১’এর পরাজিত শক্তিরা যাতে কোনোকালেই মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে সে ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

 

 

 

 

 

বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের সভাপতিত্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, কবি ও প্রাবন্ধিক অধ্যাপক গাউসুর রহমান  প্রমুখ এতে বক্তব্য রাখেন।

 

 

 

 

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান।এ ছাড়া বিশিষ্ট কলামিস্ট অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাসের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের সদস্য-সচিব সৌরভ জাহাঙ্গীর।