প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:বিশ্বকাপে নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে এসে আবারও জয়ের ধারায় ফিরেছে বাংলাদেশ দল। টনটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ।এতে ৫ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে টেবিলের পাঁচ নম্বরে এখন স্টিভ রোডসের শিষ্যরা।

এই জয়ের সঙ্গে টিকে থাকল  বাংলাদেশের সেমিফাইনালের আশাও।পয়েন্ট টেবিলে সবার ওপরে অস্ট্রেলিয়া, তারপর নিউজিল্যান্ড, ভারত এবং ইংল্যান্ড সেমির দৌড়ে এগিয়ে। তবে অনেকটাই আশা শেষ হয়ে গেছে ক্যারিবিয়দের।

বাংলাদেশের বাকি আর চারটি ম্যাচ। ২০ জুন প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।পরের ম্যাচ ২৪ জুন লড়তে হবে র‍্যাংকিংয়ের নিচের সারির দল আফগানিস্তানের সঙ্গে।এরপর ২ জুলাই ভারত। আর গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচ ৫ জুলাই লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে। বাংলাদেশ যদি এ চার  ম্যাচের সবগুলো জিততে পারে তাহলে আর কোনও সমীকরণের দরকার হবে না। সোজা চলে যাবে সেমিফাইনালে।এমনকি তিন ম্যাচ জিতলেও পয়েন্ট হবে

সেক্ষেত্রেও সেমিফাইনালের পথ খুলে যাবে বাংলাদেশের সামনে। কারণ তাহলে নিচের কোনও দলেরই আর বাংলাদেশকে টপকানোর সুযোগ থাকবে না।আর ওপরের সারির চার দল যেহেতু নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলবে, তাই তারা কেউ পয়েন্ট হারালেই ওপরে উঠে আসবে মাশরাফী-সাকিবরা। তবে বাংলাদেশ যদি বাকি চার ম্যাচের দুটিতে হেরে যায় তবে শেষ হয়ে যেতে পারে সেমির সম্ভাবনা।আর সব সমীকরণ পাল্টে দিতে পারে বৃষ্টি। কারণ পয়েন্ট ভাগাভাগি হলেই ওলট পালট হয়ে যাবে টেবিলের সমীকরণ।

তাই প্রতিটি ম্যাচেই এখন থেকে জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামতে হবে বাংলাদেশকে। কারণ দুটো দলের যদি পয়েন্ট সমান হয় তাহলে সবার আগে দেখা হবে কে কটি ম্যাচ জিতেছে। জয়ের সংখ্যার হিসেবে নির্ধারণ হবে সেমিফাইনাল স্পট।যদি সেটাও সমান সমান হয় তাহলে আসবে নেট রান রেট। এদিক থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাত্র ৪১.৩ ওভারেই ৩২১ রান তাড়া করে জয় অনেকটাই এগিয়ে দিয়েছে মাশরাফীদের। বাংলাদেশ টনটন থেকে পরের ম্যাচের জন্য মঙ্গলবার রওয়ানা হবে নটিংহ্যামে।