প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:‘জাতীয় মুক্তি মঞ্চ’ নামে পৃথক একটি প্ল্যাটফর্মের ঘোষণা দিয়েছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এই প্ল্যাটফর্মে রয়েছে কল্যাণ পার্টি, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ও ন্যাশনাল মুভমেন্ট।

 

 

অলি আহমদ বলেন, “দেশের বর্তমান নাজুক অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আমরা নির্বিকার থাকতে পারি না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। সেই লক্ষ্য সামনে রেখেই আমরা ‘জাতীয় মুক্তি মঞ্চ’ ঘোষণা করছি। আশা করি, জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী সব শক্তি আমাদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে জাতিকে মুক্ত করতে এগিয়ে আসবে। বিশেষ করে গণতন্ত্রপ্রেমী ও বাংলাদেশপ্রেমী সব রাজনৈতিক দল, সব নাগরিক, সব সামাজিক সংগঠন, সব প্রবীণ আর তারুণ্যের প্রতি আমাদের এই আহ্বান।

 

 

জাতীয় মুক্তি মঞ্চ থেকে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদের পুনর্নির্বাচন ও খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ ১৮ দফা দাবি তুলে ধরেন অলি আহমদ। তিনি বলেন, আমাদের ১৮ দফা নিয়ে জনগণের কাছে যাব। জনগণ ভয়ে ঘরে ঢুকে আছে। তাদের বের করে আনতে হবে এবং সরকারকে বোঝাতে হবে যে তারা ভুল পথে আছে।

 

 

এক প্রশ্নের জবাবে অলি আহমদ বলেন, জাতীয় মুক্তি মঞ্চ কোনো জোট নয়। আমরা ২০ দলীয় জোটে আছি এবং থাকব। ২০ দলীয় জোটের মূল দল বিএনপি। তারা তো ওই জোটে থেকেই ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে (জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট) কাজ করছে।

 

 

আরেক প্রশ্নের জবাবে অলি আহমদ বলেন, ১৯৭১ সালের জামায়াত আর ২০১৯ সালের জামায়াত এক নয়। দলটির মধ্যে অনেক সংশোধনী এসেছে। তারা নিজেরা বসেই সেসব সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের মধ্যে অনেকের দেশপ্রেম রয়েছে। তারা দেশকে ভালোবাসে এবং খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে চায়। তিনি আরো বলেন, ‘আমরা দেশপ্রেমিক সব শক্তিকে নিয়ে এগোতে চাই। জাতিকে বিভক্ত করে নয়।’

 

 

সংবাদ সম্মেলনে কল্যাণ পার্টির সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, জাগপার সভানেত্রী ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান প্রমুখ।