প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে ছিটকে যাওয়া দলগুলো এবার নিজেদের কোচিং স্টাফ পরিবর্তনের দিকে নজর দিয়েছে। বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ এবং ফিজিওর বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। কোচ স্টিভ রোডসের চাকরিও নড়বড়ে। এবার জানা গেল, চাকরি হারাতে যাচ্ছেন শ্রীলঙ্কার প্রধান কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহে। বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বাজে পারফর্মেন্সের কারণেই নাকি নতুন কোচ খুঁজতে শুরু করেছে এসএলসি। চলতি মাসের শেষে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের আগেই হাথুরুর চাকরি যেতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

 

 

 

 

প্রধান কোচ হিসেবে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে বদলে দিয়েছিলেন হাথুরুসিংহে। পাশাপাশি তার একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে অনেক সমালোচনা হয়েছে। তার বিদায়ের পর আকারে ইঙ্গিতে অনেক কথাই বলেছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। এর মাঝেই হুট করে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের কোচের পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব নেন হাথুরুসিংহে। বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার কোচ হিসেবে অভিষেক তার। সিরিজ জিতিয়ে দেন দলকে। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গেই হাথুরু হয়ে ওঠেন দলের অপ্রিয় ব্যক্তি।

 

 

 

 

ভাঙাচোরা দল নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৬ষ্ঠ স্থানে থেকে বিশ্বকাপ শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা। বাস্তবতার প্রেক্ষিতে খুব একটা খারাপ বলা যায় না। তাদের চেয়ে বেশি শক্তিধর দল নিয়েও ৮ নম্বরে থাকতে হয়েছে বাংলাদেশকে। কিন্তু দলের সঙ্গে হাথুরুর বনিবনা না হওয়ায় শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড চাইছে একজন বিদেশি কোচ নিয়োগ দিতে। তাই বিশ্বকাপ শেষ হতেই শুরু হয়েছে নতুন কোচের সন্ধান। নাম প্রকাশ না করলেও দুজন বিদেশি হাই প্রোফাইল কোচের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছেন এসএলসির একজন কর্মকর্তা। এছাড়া হাই পারফরম্যান্স কোচ অশঙ্কা গুরুসিনহার জায়গায় দেখা যেতে পারে বাংলাদেশের আরেক সাবেক কোচ ডেভ হোয়াটমোরকে।