প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:সুদানের ক্ষমতাসীন সামরিক পরিষদ জানিয়েছে, তারা বৃহস্পতিবার একটি সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা নস্যাৎ করে দিয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনী ও গণতন্ত্রপন্থী জোটের মধ্যে ক্ষমতা ভাগাভাগি নিয়ে ঐক্য হওয়ার কয়েক দিন পরই এমন ঘটনা ঘটল।

 

 

পরিষদের সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল জামাল ওমর এক বিবৃতিতে বলেন, কমপক্ষে ১৬ জন বর্তমান ও সাবেক সেনা কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দলটির প্রধান এবং জড়িত অন্য কর্মকর্তাদের আটকের চেষ্টা চালাচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী।

 

 

পরিষদ অভ্যুত্থানের চেষ্টাকারী দলের প্রধানের নাম, পদবি বা অন্য কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, গ্রেপ্তার হওয়া কর্মকর্তাদের মধ্যে পাঁচজন অবসরপ্রাপ্ত।

 

 

সুদানের সেনাবাহিনী ও গণতন্ত্রপন্থী জোট গত শুক্রবার একটি যৌথ সার্বভৌম পরিষদ গঠনের বিষয়ে একমত হয়। এ পরিষদ তিন বছরের মতো দেশ পরিচালনা করবে এবং এ সময়ের মধ্যে নির্বাচন আয়োজন করা হবে। উভয় পক্ষ বলছে, যুক্তরাষ্ট্র ও আরব মিত্রদের কূটনৈতিক চাপে তারা নিজেদের অবস্থান থেকে সরে এসেছেন। এ অবস্থানের কারণে সুদানে গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি দেখা দিয়েছিল।

 

 

গত এপ্রিলে স্বৈরাচারী রাষ্ট্রপতি ওমর আল-বশিরের পতনের পর থেকে সুদানে রাজনৈতিক অচলাবস্থা বিরাজ করছে। ক্ষমতার দখল নেয়া সেনাবাহিনীর হাতে শতাধিক গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন বলে আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন।