প্রথমবার্তা বিনোদন প্রতিবেদক:  ঢালিউডে এ পর্যন্ত শতাধিক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন নায়িকা অপু বিশ্বাস। বর্তমানে তার হাতে রয়েছে দুটি ছবি। একটি হচ্ছে দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ এবং অন্যটি কলকাতার সুবীর মণ্ডল পরিচালিত ‘শর্টকাট’। এ ছবিগুলোর কাজ এখন শেষের পথে। অপু বিশ্বাস বলেন, দুটির মধ্যে ‘শর্টকাট’ ছবির শুধু ডাবিং বাকি। আর ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ এর অল্প কিছু কাজ বাকি আছে। ছবিটির এ পর্যন্ত শেষ হওয়া কাজ ভালো হয়েছে। এছাড়া এই ইন্ডাস্ট্রিতে দেবাশীষ বিশ্বাসের একটি নাম আছে।

 

 

 

 

সেই সঙ্গে ছবিটি বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজনায় নির্মাণ হচ্ছে। তাই আমি মনে করি, ভালো কিছুই দর্শকরা পাবেন। দুটি গানের চিত্রায়ণ হয়ে গেলেই ছবিটির কাজ শেষ হবে। দুটি সিনেমা নিয়েই আমি আশাবাদী। বর্তমানে শাকিব খান, নায়িকা ববিসহ বেশ কয়েকজন তারকা চলচ্চিত্র প্রযোজনায় সম্পৃক্ত। অপু বিশ্বাসের এমন ইচ্ছে সামনে আছে কি-না জানতে চাইলে বলেন, আমার কখনোই চলচ্চিত্র প্রযোজনা করার ইচ্ছে ছিল না। আর আমি চলচ্চিত্র প্রযোজনায় আসতে চাই না। সামনে অভিনেত্রী হিসেবেই বড়পর্দায় বেছে কিছু কাজ করতে চাই। আর আমি আবারো ওজন কমানোর চেষ্টা করছি। ডায়েট চার্ট মেনে ওজন কমানো তো কঠিন হয়ে যায়।

 

 

 

 

কারণ আমার ছেলে আব্রাম খান জয়ের বয়স কম। তাকে স্কুলে নেয়া-আনাসহ বিভিন্ন কাজ নিয়ে আমাকে ব্যস্ত থাকতে হয়। জয়কে বেশি সময় দিতে হচ্ছে এখন। অপু বিশ্বাস গেল রোজার ঈদে ফ্যাশন হাউজ মেহজাবিনের ফটোসেশনে মডেল হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন। এছাড়া ফ্যাশন হাউজ প্রেম কালেকশনের গত ঈদ শোতেও অতিথি হিসেবে দেখা গেছে তাকে। সামনের কাজ নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ ছবির কাজটি শেষ করতে চাই।

 

 

 

 

 

 

এর পাশাপাশি নতুন কাজে যুক্ত হতে চাই। বেশ কয়েকটি কাজ নিয়ে কথা হচ্ছে। আগে থেকে এ বিষয়ে কিছু বলতে চাই না। অপু বিশ্বাস অভিনীত পরিচালক আব্দুল মান্নানের ‘পাঙ্কু জামাই’ ছবিটি সবশেষ মুক্তি পায়। এ ছবিতে তার বিপরীতে শাকিব খান অভিনয় করেন। এদিকে অপু বিশ্বাস মধ্যে একটি তেলের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে পারফরম্যান্স করেছেন। আকাশ আমিন নির্মিত এ কাজটিও সামনে দর্শকরা টিভিতে দেখতে পাবেন। বর্তমান সময়ে চলচ্চিত্রের বেশ কয়েকজন  নির্মাতা, অভিনেতা-অভিনেত্রী ওয়েব সিরিজ নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। তবে অপু বিশ্বাসকে এখনো কোনো ওয়েব সিরিজে দেখা যায়নি।

 

 

 

 

 

 

কবে তাকে দর্শকরা ওয়েব সিরিজে দেখতে পাবেন জানতে চাইলে বলেন, আমি চলচ্চিত্রের মানুষ। আর চলচ্চিত্র নিয়েই সবসময় ভাবতে পছন্দ করি। ওয়েব সিরিজ নিয়ে কাজ করার কথা এখনই ভাবছি না। দেশে কয়েকটি ভালো মানের ওয়েব সিরিজ এরইমধ্যে নির্মাণ হয়েছে। চলচ্চিত্রের অনেকে এসব ওয়েব সিরিজে কাজও  করেছেন। আমি কোনো কাজকে ছোট করে দেখতে চাই না।

 

 

 

 

 

যারা কাজ করছেন অবশ্যই বুঝেশুনেই করছেন। ভালো কাজ দর্শকের কাছে সবসময়ই গ্রহণযোগ্যতা পায়। আমাদের আধুনিক সিনেমা হল নির্মাণ নিয়ে যে সংকট রয়েছে সেটা আগে দূর করতে হবে। আর দর্শকরা এখনো সিনেমা হলে গিয়ে ভালো মানের ছবি দেখেন। এটা আমরা সকলে জানি। দর্শকরা আগেও আমাদের উৎসাহ দিয়েছেন, ভালোবাসা দিয়েছেন। আশা করি, সব সময়ই তারা চলচ্চিত্রের পাশে থাকবেন।