প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:
তথ্য-প্রযুক্তির ভবিষ্যৎ সুপারহাইওয়ের নাম ফাইভজি প্রযুুক্তি। পাঁচ বছর পর ফাইভজির ওপর ভিত্তি করে যেসব প্রযুক্তি আসবে তা বর্তমানে অনুমানও করা যায় না। ভবিষ্যতে নতুন সভ্যতার জন্ম দেবে ফাইভজি। তাই ২০২১ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে বাংলাদেশে ফাইভজি প্রযুুক্তি সেবা সহজলভ্য করতে কাজ করছে বিটিআরসি। টেলিটককেও প্রস্তুত করা হচ্ছে। 

রবিবার ঢাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশে (আইইবি) ‘ফাইভজি : দ্য ফিউচার নেটওয়ার্ক’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মোবাইল ও স্মার্টফোনের মতো ভবিষ্যতে ফাইভজি ডিভাইসও বাংলাদেশে তৈরির আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। আইইবি কম্পিউটারকৌশল বিভাগ আয়োজিত এই সেমিনারে আরো বক্তব্য দেন আইইবির প্রেসিডেন্ট আবদুস সবুর, টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহাব উদ্দিন এবং বিটিআরসির কমিশনার প্রকৌশলী মহিউদ্দিন ঝন্টু।