প্রথমবার্তা প্রতিবেদকঃ নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মেহেদী হাসান (২৭) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীসহ দুইজন। আজ শুক্রবার (৯ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার বনপাড়ার গোধরা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 

 

নিহত মেহেদী যশোর জেলার শার্শা আমলাই গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। স্ত্রী রোকসানা বেগম (২২) একই জেলার সাতগোগা গ্রামের হামজার আলীর মেয়ে। তাঁকে বনপাড়া পাটোয়ারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অপর মোটরসাইকেল আরোহী বাবু হোসেনকে (৩০) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ফোরম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

 

 

 

 

বনপাড়া হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহফুজুর রহমান জানান, ঈদের ছুটিতে কর্মস্থল টাঙ্গাইল থেকে মেহেদী তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে  বাড়ি ফিরছিলেন। অন্যদিকে বাবু মেহেরপুর থেকে নাটোরের নলডাঙ্গায় নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। ঘটনাস্থলে তাদের দুই  মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে  পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য তা নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।