58 / 100 SEO Score

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: সাধারণ মেয়েদের ভুলিয়ে বাসায় নিয়ে এসে আটকে রাখতেন তিনি। এরপর তাদের উপর নানা রকম অ’ত্যাচার চলতো দিনের পর দিন। দেহ ব্যবসা করতে রাজি হলে তবেই অত্যাচারের মাত্রা কমতো। এমনটাই চালিয়ে আসছিলেন আমেরিকার টিভি জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অ্যালিসন ম্যাক।

 

 

 

 

অনেকগুলো সুপারহিট টিভি সিরিজে লিড চরিত্রে অভিনয় করেছেন অ্যালিসন। তার মিষ্টি চেহারা দেখে বোঝায়র উপায় ছিলো না এমন কর্মকাণ্ডের সঙ্গে থাকতে পারেন তিনি। সুন্দর রূপের আড়ালে অনেক দিন লুকোনো ছিলো তার এই ব্যবসা খবর।

 

 

 

 

অ্যালিসনে মুখোশ খুলে যায় ২০১৮ সালে । এরপরই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। নতুন খবর হলো সম্প্রতি আমেরিকান কোট এই ঘটনার সাজা দিয়েছে।

 

 

 

 

জানা গেলে, অ্যালিসনের অপরাধের সাজা দেওয়া হয়েছে ২০ বছরের জেল। এখন দুই দশক তাকে জেলেই কাটাতে হবে। তার খপ্পরে পড়ে যাদের জীবন নষ্ট হয়ে তারা সস্তির নিশ্বাস ফেলছেন। এলিসনের সাজা হওয়ায় ভীষণ খুশি তারা।

 

 

 

খবর প্রকাশ হয়, যৌ’নপাচারে সক্রিয়ভাবে অংশ নেওয়ার কথা নাকি নিউ ইয়র্কের আদালতে দাঁড়িয়ে এ কথা নিজেই স্বীকার করেন মার্কিন টিভি স্টার অ্যালিসন ম্যাক।

 

 

 

 

২০১৮ সালের এপ্রিলে ম্যাককে গ্রেফতার করা হয়। তিনি নেক্সইউএম নামে একটি প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষক হিসেবে যুক্ত ছিলেন। ম্যাক স্বীকার করে নিয়েছেন, তিনিও ব্ল্যাকমেইল করে দু জন যুবতীকে এই প্রতিষ্ঠানে নিয়ে এসেছিলেন। ম্যাকের বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা হয়েছে ১১ সেপ্টেম্বর