6 / 100 SEO Score

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:  অর্থপাচারের অভিযোগে দুদকের করা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ব্যবসায়িক বন্ধু কারাবন্দি গিয়াসউদ্দিন আল মামুন প্যারোলে মুক্তির আবেদন করেছেন।ঢাকা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বরাবর বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) তার পক্ষে আবেদনটি করেন তার ভাই জালাল উদ্দিন রুমি।

 

 

 

 

গিয়াসউদ্দিন আল মামুনের মা হালিমা খাতুন (৯৩) রাজধানীর একটি হাসপাতালে বার্ধক্যজনিত কারণে মারা গেছেন। তাকে শেষ দেখা, জানাজা ও দাফনে উপস্থিত থাকার জন্য এ আবেদন করা হয়েছে।

 

 

 

 

গিয়াস উদ্দিন আল মামুনকে ২০০৭ সালে গ্রেফতার করা হয়। তখন থেকে তিনি কারাগারে। অর্থ পাচার মামলায় তাকে সাত বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ১২ কোটি টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেছেন আদালত।

 

 

 

 

রায়ে বলা হয়, গিয়াস উদ্দিল আল মামুনের লন্ডনের ন্যাটওয়েস্ট ব্যাংকে জমা আছে বাংলাদেশি টাকায় ৬ কোটি ১ লাখ ৫৭ হাজার ৭৬২ টাকা। এই টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা হলো।

 

 

 

 

বাজেয়াপ্ত করার বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকে জানিয়ে বাজেয়াপ্ত সম্পত্তির সব বিবরণ সরকারি গেজেট আকারে প্রকাশের নির্দেশ দেন আদালত। ২০১১ সালের ২২ সেপ্টেম্বর ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলাটি দায়ের করেছিল দুদক। ২০০৩ থেকে ২০০৬ সালের মধ্যে ৬.১৫৭ কোটি টাকা পাচারে অভিযুক্ত হন মামুন।