প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট : মিয়া খলিফার কাছে পর্যুদস্ত সানি লিওন। তার জনপ্রিয়তার দিন শেষ! একটি জরিপে তেমনই দাবি করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ভারতীয়রা এখন মজে মিয়া খলিফায়। পর্নস্টারদের মধ্যে জনপ্রিয়তা এখানে এখন সব থেকে বেশি খলিফার।ইন্টারনেটে সানি লিওনের নামে সার্চ সব থেকে বেশি হতে পারে। কিন্তু তিনি আপাতত লেবাননের পর্নস্টার মিয়া খলিফার কাছে হার মেনেছেন।একটি জরিপ অনুযায়ী এই মুহূর্তে ভারতে মিয়া খলিফা সব থেকে জনপ্রিয় পর্নস্টার। শুধু তা-ই নয়, তালিকার প্রথম দিকে সানি লিওনের নামই নেই।

 

 

 

 

গুগল সার্চ, ফেসবুক, টুইটার, মেনশন, ইউটিউব সার্চ- ওয়েবসাইট ভিজিটের মতো তথ্য একত্র করে এই তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। তাতেই দেখা গেছে, মিয়া খলিফার থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছেন সানি লিওন।‘হোটেলে তার সঙ্গে মনের মত একটি রাত কাটালাম’বলিউড অভিনেত্রী স্নেহা উল্লাল অনেকদিন ধরেই খবরে নেই। অথচ এখন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে হঠাৎ তাকে ঘিরে হৈচৈ পড়ে গেছে! তার নামই আছে ট্রেডিংয়ে। এর কৃতিত্ব অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ক্রিকেটার ক্রিস গেইল ও ডোয়াইন ব্রাভোর।ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্টইন্ডিজ মাঠে নামার একদিন আগে নাকি তাদের সঙ্গে পার্টিতে অংশ নেন স্নেহা। অবশেষে সেই ব্যাপারে মুখ খুললেন অভিনেত্রী।

 

 

 

 

২৮ বছর বছর বয়সী এই অভিনেত্রী ভারতীয় একটি পত্রিকাকে জানান, ৩৬ বছর বয়সী এই ক্যারবীয় তারকার সাথে নেচেছেন, জমিয়ে আড্ডাও দিয়েছেন। বলেন, ক্রিস গেইল খুব শান্ত মানুষ, হোটেলে তার সঙ্গে মনের মত একটি রাত কাটালাম, অনেক মজাও হয়েছে।স্নেহা বলেন, অনেক মজা করলাম। মনে রাখার মত একটি রাত কাটলো। আমাকে আমত্রণ জানানোর জন্য ভেগা এন্টাটেইনমেন্টকে ধন্যবাদ। ২০০৫ সালে বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের সঙ্গে ‘লাকি’ ছবিতে অভিনয় করে পরিচিতি পান স্নেহা।এর মাধ্যমেই বলিউডে অভিষেক হয় তার।ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে তার চেহারায় কিছুটা সাদৃশ্য থাকায় অল্প সময়েই জনপ্রিয়তা পেয়ে যান তিনি। এখন আঞ্চলিক ছবিতেই বেশি কাজ করেন স্নেহা। এরই মধ্য মুক্ত পেয়েছে তেলেন্ড ছবি ভারুদু, দ্যা ব্লকবাস্টার সিমহা ও অ্যাকশন থ্রিডি।