প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :  চলতি সিজনে একটি ম্যাচ না খেলেও সিকে নাইডু ট্রফির জন্যে দিল্লির টি-২০ দলে জায়গা করে নিলেন বিহারের বিতর্কিত সাংসদ পাপ্পু যাদবের ছেলে সার্থক রঞ্জন। অথচ রিজার্ভ বেঞ্চে বসানো হয়েছে অনূর্ধ্ব-২৩ এর টপ স্কোরার হিতেন দাললকে।

 

আরজেডি’র প্রাক্তন বিতর্কিত নেতা পাপ্পু যাদবের অফিসিয়াল নাম রাজেশ রঞ্জন। বর্তমানে নিজের আলাদা দল জন অধিকার পার্টি চালাচ্ছেন। তিনি বিহারের মাধেপুরার সাংসদ। যদিও তার স্ত্রী সুপাউলের কংগ্রেস সাংসদ। তাদেরই ছেলের টি-২০ দলে নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক বেঁধেছে। বেশ কয়েকজন ভালো পারফর্মারকে দলের বাইরে রেখে প্রভাবশালী ব্যক্তির ছেলেকে কোনো কারণ ছাড়াই দলে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য অভিযোগের আঙুল উঠেছে নির্বাচক কমিটির তিন সদস্য অতুল ওয়াসান, হরি গিদওয়ানি ও রবিন সিং জুনিয়রের বিরুদ্ধে।

গত মুস্তার আলি ক্যাম্পেনের সময়ও দিল্লির দলে অযাচিতভাবে জায়গা পান সার্থক। সেখানে তিনটি ম্যাচে তার স্কোর ছিল যথাক্রমে ৫, ৩ ও ২। মৌসুমের শুরুতে রঞ্জি ট্রফির সম্ভাব্য তালিকায় জায়গা পাওয়ার পরও নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন পাপ্পু যাদবের ছেলে। বিভিন্ন জায়গায় খবর রটে যে, খেলাধুলা থেকে তিনি উত্‍‌সাহ হারিয়েছেন। এবার তিনি মিস্টার ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য শরীরচর্চায় মন দিয়েছেন। মৌসুমের শেষের দিকে হঠাত্‍‌ একদিন সার্থকের মা রঞ্জিত রঞ্জন ডিডিসিএ  প্রশাসক অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি বিক্রমজিত্‍‌ সেনকে ইমেল করে জানান, তার ছেলে হতাশায় ভুগছিলেন। বর্তমানে তিনি খেলার জন্য সম্পূর্ণ ফিট। প্রটোকল অনুযায়ী এই বিষয়টি তার হাতে না-থাকায় ইমেলটি নির্বাচকমণ্ডলীর কাছে পাঠিয়ে দেন প্রশাসক।

 

এরপরই আচমকা সিকে নাইডু ট্রফির জন্য দিল্লির অনূর্ধ্ব-২৩ দলের স্ট্যান্ড-বাই তালিকাভুক্ত হন সার্থক। নির্বাচক ওয়াসানের যুক্তি, সার্থকের কিছু মানসিক সমস্যা হয়েছিল। যখন ও জানাল ফিট আছে, তখন আমি ব্যক্তিগতভাবে ওকে নজরে রেখেছি।

সিকে নাইডু ট্রফিতে একটি সেঞ্চুরিসহ ৪৬৮ রান রয়েছে দালালের। তার গড় ৫২। স্ট্রাইক রেট ৯১.৫৮। তা সত্ত্বেও তাকে স্ট্যান্ড বাই তালিকায় রাখা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে।
সূত্র : এই সময়

এই বিভাগের আরো খবর :

রং রোগ নিরাময়ে!
সেই ডিআইজি মিজান ক্রয় করতে চান ৪০ পিস গুলি!
মঠবাড়িয়ায় ভুয়া মাদ্রাসা পরিদর্শক আটক
সাপাহার বিদ্যানিকেতনে বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণ
বিপদে অনন্যা স্বজনপ্রীতি নিয়ে বলে
'জাতিসংঘের স্বীকৃতিই প্রমাণ করে বাংলাদেশ এগিয়েছে'
ঢাকায় এডিবির প্রেসিডেন্ট তাকিহিক নাকাও
‘আল্লাহ দিচ্ছেন আমি নিচ্ছি’
বর্তমানে কৃষি উৎপাদন প্রায় তিনগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে : প্রধানমন্ত্রী
মাত্র ১০ মিনিটে সকালের নাশতা আলু পোহা
এলডিপির নতুন অংশের নেতৃত্বে আব্বাসী-সেলিম
অক্ষত থাকবে কি তাজমহল বা কাশী-মথুরার মসজিদ ?
‘আমি বললাম, বাম দিকটা উঁচু হলো কেন, আর তখনি ক্রাশ হয়ে গেল’
রণবীরকে যে কারণে এত বেশি পছন্দ, ফাঁস করলেন দীপিকা!
দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক সংস্কৃতি মন্ত্রীর কারাদণ্ড