প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ   বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে সাথী আক্তার (২৭) নামে এক গৃহিনীকে সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়ে গুরুতর আহত করেছে তার স্বামী ও পরিবারের সদস্যরা। গৃহিনীর মাথার চুলও কেটে ফেলা হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় সাথীকে বৃহস্পতিবার মোরেলগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুই সন্তানের জননী সাথী আক্তারের অভিযোগ, যৌতুকের দাবিতে এমন পাশবিক নির্যাতন করা হয়েছে তার ওপর। বৃহস্পতিবার বেলা ৭টার দিকে হরগাতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

 

সাথী আক্তার বলেন, চার বছর পূর্বে হরগাতি গ্রামের আলী আকবর হাওলাদারের ছেলে রিয়াজুল (৩০) এর সাথে বিয়ে হয় তার। এ পর্যন্ত স্বামী রিয়াজুলকে পিতার নিকট থেকে ৯০ হাজার টাকা নিয়ে দিয়েছেন সাথী। বর্তমানে আরও দেড় লাখ টাকা দাবি করছে রিয়াজুল। সাথীর পিতা বেল্লাল খান পেশায় ভ্যান শ্রমিক। তিনি ওই টাকা দিতে না পরায় তার মেয়ে সাথী আক্তারের ওপর মানষিক ও শারীরিক নির্যাতন করা হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

এ ঘটনায় সাথী আক্তার বৃহস্পতিবার সকালে তার স্বামী, দেবর, শ্বশুর, শাশুড়িসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, সাথী আক্তারের অভিযোগ পেয়েছি। মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামিদের আটকের জন্য এলাকায় পুলিশের দুটি টিম অভিযান শুরু করেছে।