প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  প্রশ্নঃ দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামায ইসলামের পঞ্চস্তম্ভের দ্বিতীয় স্তম্ভ এবং মুসলমানের সবচে’ আবশ্যিক প্রাত্যহিক ইবাদত। জানতে চাই, এই নামায কত হিজরীতে থেকে ও কীভাবে ফরয হল?

 

 

 

 

 
উত্তরঃ হিজরী সন তো গণনা শুরু হয় রাসুলুল্লাহ (সা.) এর মদীনায় হিজরতের পর থেকে। কিন্তু নামায ফরয হয় হিজরতের পূর্বে নবুওয়াতের ১২ অথবা ১৩তম বছরে। মি’রাজের রাতে সপ্ত আকাশের ঊর্ধ্বে সরাসরি আল্লাহ ও তাঁর প্রিয় রসূলের সাক্ষাতে ফরয করা হয় এই নামায। প্রত্যহ্‌ ৫০ ওয়াক্ত নামায ফরয হলে হযরত মূসা (আ.) ও হযরত জিবরীল (আ.) এর পরামর্শক্রমে রাসুলুল্লাহ (সা.) আল্লাহর কাছে কয়েকবার যাতায়াত করে নামায হাল্কা করার দরখাস্ত পেশ করলে ৫০ থেকে ৫ ওয়াক্তে কমিয়ে আনা হয়। কিন্তু আল্লাহর কথা অনড় বলেই ঐ ৫ ওয়াক্তের বিনিময়ে ৫০ ওয়াক্তেরই সওয়াব নামাযীরা লাভ করে থাকেন। –বুখারী, মুসলিম,  মিশকাত:৫৮৬৪

 

 

 

 

নামায ফরয হওয়ার গোড়াতে (৪ রাকআতবিশিষ্ট নামাযগুলো) দু’ দু’ রাকআত করেই ফরয ছিল। পরে যখন নবীজি (সা.) মদীনায় হিজরত করলেন, তখন (যোহ্‌র, আসর ও এশার নামাযে) ২ রাকাত করে বেড়ে ৪ রাকআত হল। তবে স্বতন্ত্র ফরমানে সফর অবস্থার নামায দুই রাকাতই রাখা হল। –বুখারী, মুসলিম, আহমাদ, মুসনাদ, মিশকাত:১৩৪৮