প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  অনেক চেষ্টার পর, অনেক নাটকের পরও ধরে রাখা গেল না সাবেক অজি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথকে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জার্সিতে বিপিএল শেষ হয়ে গেল তার। চোটে পড়ে দুদিন আগে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়েছিলেন এই তারকা ব্যাটসম্যান। সেখানে স্ক্যান করানোর পর পেলেন দুঃসংবাদ। কনুইয়ের চোটে অস্ত্রোপচার টেবিলেই যেতে হচ্ছে তাকে। তাকে হারানোটা কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জন্য নিঃসন্দেহে বড় ধাক্কা।

 

 

 

 

 

 

 

 

বল টেম্পারিং কাণ্ডে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞায় থাকা স্টিভেন স্মিথকে দলে নিয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এর পরেই বদলে যায় দৃশ্যপট। বিপিএলের আইন ভেঙে প্লেয়ার ড্রাফটের বাইরে থেকে স্মিথকে দলে নেওয়ায় আপত্তি তোলে বাকী ফ্র্যাঞ্চাজিগুলো। বিষয়টির মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সিদ্ধান্ত দেওয়ার ভার যায় বিসিবির ওপর। বাকী ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর আপত্তির মুখে স্মিথের বিপিএল খেলা হচ্ছে না বলে বিসিবি ঘোষণা দেয়।

 

 

 

 

 

এরপর কুমিল্লার অনুরোধে এবং বিপিএলের চাকচিক্য বাড়াতে আইন পাল্টে স্মিথকে খেলানোর ব্যবস্থা করা হয়।কিন্তু ভাগ্য সহায় হলো না। দুদিন আগে কুমিল্লা ফ্র্যাঞ্চাইজি জানিয়েছিল, ব্যক্তিগত চিকিৎসক দেখাতে দ্রুত অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যাচ্ছেন স্মিথ। সেখানে এমআরআই করাবেন তিনি। এমআরআইয়ের রিপোর্ট যদি ইতিবাচক হয় তিনি দ্রুত ফিরে আসবেন। কিন্তু আজ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ওয়েবসাইট জানিয়েছে, স্মিথকে শল্যবিদের ছুরির নিচে যেতে হচ্ছে। অস্ত্রোপচারের পর অন্তত দেড় মাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে তাকে। এরপর শুরু হবে পুনর্বাসন প্রক্রিয়া।

 

 

 

 

 

 

রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে গতকালের ম্যাচে স্মিথের জায়গায় কুমিল্লাকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ইমরুল কায়েস। জিতিয়েছেন দলকে। তবে এখন তিনিই কুমিল্লার স্থায়ী অধিনায়ক হবেন কিনা তা জানা যায়নি। এটাও নিশ্চিত নয় যে, স্মিথের বদলে বিদেশি কোটায় কোন ক্রিকেটার আসছেন?