প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  বাস্তব কখনও গল্পকেও হার মানায়। সম্প্রতি ব্রাজিলে মানুষরূপী পশুর ফেলে যাওয়া নবজাতক সন্তানের প্রাণ বাঁচিয়েছে রাস্তার একটি কুকুর। যে ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে যাওয়ার পর মানবতা নিয়ে নতুন করে আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

 

 

 

 

 

ঘটনাটি ঘটেছে ব্রাজিলের সাও পাওলো প্রদেশের ক্যাম্পিনাস এলাকায়। রাস্তার পাশে এক সকালে আবর্জনায় কাঁদছিল নবজাতক এক শিশু। হয়তো কারো কানে পৌঁছায়নি, বা পৌঁছালেও আসেনি কেউ এগিয়ে। তবে কেউ এগিয়ে না এলেও রাস্তার পাশে সবার অবহেলার পাত্র এক কুকুরের কানে কিন্তু ঠিকই পৌঁছেছিল শিশুটির আর্তি। তাই মানুষ হয়ে কেউ যে কাজটি পারেনি, সেই কাজটি করে দেখায় রাস্তার কুকুর। কান্নার আওয়াজ শুনে ছুটে যায় শিশুটির কাছে।

 

 

 

 

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শিশুটির কাছে যেয়ে খুব শান্তভাবে তাকে মুখে তুলে নেয় কুকুরটি। সেভাবেই বাচ্চাটিকে নিয়ে যায় রাস্তার পাশের একটি বাড়িতে। এরপর সেই বাড়ির মানুষের তৎপরতায় নবজাতককে হাসপাতালে পাঠানো হয়।প্রাথমিক চিকিৎসার পর সেই নবজাতক এখন সুস্থ। চিকিৎসকের কথায়, কুকুরের মানবতায় প্রাণে বেঁচে গেছে শিশুটি। যে মানবতা দেখানো প্রয়োজন ছিল মানুষের!