প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ  পৃথিবীর জীবনে আমরা একেকটা মানুষ নিরঙ্কুশ শান্তির সময়টা দীর্ঘকাল পাই না সাধারণত। প্রতিটি সুখের পর দুঃখ-দুর্দশার সময় যে আসে আমাদের জীবনে, তা আসলে আল্লাহর পক্ষ থেকে বান্দার প্রতি ‘রিমাইন্ডার’। আমরা যেন ধোঁকা থেকে ফিরে আসি, অনন্ত সুখের জগতের দিকে জীবনকে ফেরাই, সিজদাবনত হই। এ সময়গুলোতেও বিপদ থেকে উদ্ধার হতে, দুশ্চিন্তা থেকে মুক্ত হতে আল্লাহ ও তাঁর রাসুল শিখিয়ে দিয়েছেন বেশ কিছু অবলম্বনীয় পথ ও দোয়া। তার মধ্য থেকে এ নিবন্ধে পাঠক সমীপে দুটি দোয়া পেশ করছি।

 

 

 

 

১। দুশ্চিন্তাগ্রস্ত মানুষকে নবীজি পড়তে শিখিয়েছেন- «اللَّهُمَّ إِنِّي عَبْدُكَ، ابْنُ عَبْدِكَ، ابْنُ أَمَتِكَ، نَاصِيَتِي بِيَدِكَ، مَاضٍ فِيَّ حُكْمُكَ، عَدْلٌ فِيَّ قَضَاؤُكَ، أَسْأَلُكَ بِكُــــلِّ اسْمٍ هُوَ لَكَ، سَمَّيْتَ بِهِ نَفْسَكَ، أَوْ أَنْزَلْتَهُ فِي كِتَابِكَ، أَوْ عَلَّمْتَهُ أَحَداً مِنْ خَلْقِكَ، أَوِ اسْتَأْثَرْتَ بِهِ فِي عِلْمِ الغَيْبِ عِنْدَكَ، أَنْ تَجْعَلَ القُرْآنَ رَبِيعَ قَلْبِي، وَنُورَ صَدْرِي، وَجَلاَءَ حُزْنِي، وَذَهَابَ هَمِّي».(আল্লা-হুম্মা ইন্নী ‘আবদুকা ইবনু ‘আবদিকা ইবনু আমাতিকা, না-সিয়াতী বিয়াদিকা, মা-দ্বিন ফিয়্যা হুকমুকা, ‘আদলুন ফিয়্যা কাদ্বা-উকা, আসআলুকা বিকুল্লি ইসমিন হুয়া লাকা সাম্মাইতা বিহি নাফসাকা, আও আনযালতাহু ফী কিতা-বিকা আও ‘আল্লামতাহু আহাদাম্-মিন খালক্বিকা আও ইস্তা’সারতা বিহী ফী ‘ইলমিল গাইবি ‘ইনদাকা, আন্ তাজ‘আলাল কুরআ-না রবী‘আ ক্বালবী, ওয়া নূরা সাদ্‌রী, ওয়া জালা’আ হুযনী ওয়া যাহা-বা হাম্মী)।

 

 

 

 

অর্থ- “হে আল্লাহ! আমি আপনার বান্দা, আপনারই এক বান্দার পুত্র এবং আপনার এক বান্দীর পুত্র। আমার কপাল (নিয়ন্ত্রণ) আপনার হাতে; আমার ওপর আপনার নির্দেশ কার্যকর; আমার ব্যাপারে আপনার ফয়সালা ন্যায়পূর্ণ। আমি আপনার কাছে প্রার্থনা করি আপনার প্রতিটি নামের উসীলায়; যে নাম আপনি নিজের জন্য নিজে রেখেছেন অথবা আপনার আপনি আপনার কিতাবে নাযিল করেছেন অথবা আপনার সৃষ্টজীবের কাউকেও শিখিয়েছেন অথবা নিজ গায়েবী জ্ঞানে নিজের জন্য সংরক্ষণ করে রেখেছেন—আপনি কুরআনকে বানিয়ে দিন আমার হৃদয়ের প্রশান্তি, আমার বক্ষের জ্যোতি, আমার দুঃখের অপসারণকারী এবং দুশ্চিন্তা দূরকারী।” (মুসনাদে আহমাদ)

 

 

 

 

২। এমনিভাবে ঋণগ্রস্ত হলে বা যেকোন দুঃখ-দুশ্চিন্তায় নিপতিত হলে আল্লাহর রাসুল সা. নিম্নের এ দোয়াটি বেশি বেশি পড়েছেন ও সাহাবাদের পড়তে শিখিয়েছেন-«اللَّهُمَّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ مِنَ الْهَمِّ وَالْحَزَنِ، وَالْعَجْزِ وَالْكَسَلِ، وَالْبُخْلِ وَالْجُبْنِ، وَضَلَعِ الدَّيْنِ وَغَلَبَةِ الرِّجَالِ».(আল্লা-হুম্মা ইন্নি আ‘ঊযু বিকা মিনাল হাম্মি ওয়াল হাযানি, ওয়াল ‘আজযি ওয়াল কাসালি, ওয়াল বুখলি ওয়াল জুবনি, ওয়া দালা‘ইদ দ্বাইনে ওয়া গালাবাতির রিজা-লি)

 

 

 

 

 

 

অর্থ- “হে আল্লাহ! নিশ্চয় আমি আপনার আশ্রয় নিচ্ছি দুশ্চিন্তা ও দুঃখ থেকে, অপারগতা ও অলসতা থেকে, কৃপণতা ও ভীরুতা থেকে, ঋণের ভার ও মানুষদের দমন-পীড়ন থেকে।” (বুখারি)