প্রথমবার্তা,রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) দুই দিনব্যাপী ‘আনর্ত নাট্যমেলা’ শুরু হবে আগামী সোমবার । সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় মেলার ইসমাঈল হোসেন সিরাজী ভবনের সামনে মেলার উদ্বোধন করবেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। থিয়েটার বিষয়ক পত্রিকা ‘আনর্ত’ এই মেলার আয়োজন করেছে। শনিবারর্ ) সকাল সাড়ে ১০টায় সংবাদ সম্মেলনে আনর্তের সম্পাদক ও নাট্যকলা বিভাগের সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক রহমান রাজু এসব তথ্য জানান।

 

 

 

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, বিশেষ অতিথি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া, বিশ্ব ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউটের সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, মামুনুর রশীদ, বিপ্লব বালা প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন। উদ্বোধন শেষে ‘নাট্যযাত্রা’ বের করা হবে।

 

 

 

 

বেলা ১২টায় ‘থিয়েটারের নেপথ্য ও প্রত্যক্ষ মানুষ: উপেক্ষায় সম্ভাবনার সূত্র’ শীর্ষক আনর্তবৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। দুপুর দুইটায় থিয়েটারের নেপথ্যের কারিগর দুইজন মানুষকে আনর্ত-স্বীকৃতি দেওয়া হবে। বিকেল সাড়ে তিনটায় থেকে সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত তিনটি নাট্যকথা অনুষ্ঠিত হবে। নাট্যকথায় উপস্থাপনা করবেন নাট্যগবেষক সাইদুর রহমান, রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোনালিসা চ্যাটার্জি ও দেবলীনা ত্রিপাঠী।

 

 

 

বিকেল সাড়ে পাঁচটায় থাকবে অন্যরকম গানের আসর ‘নটনটীর ভূমিগীতি’। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে বিশিষ্ট নাট্যকার মলয় ভৌমিকের নির্দেশনায় নাটক ‘বুদেরামের কূপে পড়া’ মঞ্চায়নের মাধ্যমে প্রথম দিনের আয়োজন শেষ হবে।

 

 

 

দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার সকাল ১০টায় শুরু হবে নাট্যজনদের নিয়ে দুই ঘন্টাব্যাপী সৌহার্দ্য বিনিময়। বেলা ১২টায় ও বিকেল তিনটায় আরও দুইটি আনর্তবৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠক শেষে অন্যরকম গানের আসর, মেলাচত্বরে নাট্যজনদের নিয়ে আড্ডার আয়োজন করা হয়েছে। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে মেহেদী তানজিরের নির্দেশনায় ‘বেহুলা, আমি এবং সতীত্ব’ নাটক মঞ্চায়ন করবে ঢাকার নাট্যদল ‘মহড়া’।

 

 

 

 

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় নওগাঁর সাইদুর ও তাঁর দলের ‘বেলাবতী কইন্যা’ শীর্ষক কিচ্ছানাট্য পরিবেশনের মাধ্যমে নাট্যমেলা সমাপ্ত হবে। সংবাদ সম্মেলনে নাট্যকলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কৌশিক সরকার ও সুমনা সরকার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের প্রভাষক কৌশিক আহমেদ, রাজশাহীর জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা মো. আসাদ সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।