প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:   সাতক্ষীরা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ-এর নির্যাতনে কবির হোসেন (৩২) নামে এক বাংলাদেশি শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহত শ্রমিক সদর থানার কালিয়ানি ছয়ঘরিয়া গ্রামের আবদুল আজিজের ছেলে। শুক্রবার রাতে ভারতে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার সময় বিএসএফ সদস্যরা তাকে আটক করে নির্যাতন করে ফেলে যায়।

 

 

 

 

 

 

পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে আজ ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। পরিবারের অভিযোগ, বিএসএফ সদস্যরা তার পায়ুপথে পেট্রোল ঢেলে নির্যাতন করেছে। জানা যায়, নিহত শ্রমিক কবির হোসেন সীমান্তের ওপারে ভারতে শ্রমিকের কাজ করতেন।

 

 

 

 

 

কাজ শেষে শুক্রবার রাতে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বছিরহাট থানার ডুগলি ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা তাকে আটক করে।তার ওপর ব্যাপক নির্যাতন চালায়।  পরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পুশখালী সীমান্তে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ফেলে যায়।

 

 

 

 

আজ ভোরে গ্রামবাসী তাকে পড়ে দেখে উদ্ধার করে জেলার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরিবারে অভিযোগ, বিএসএফ সদস্যরা কবিরের পায়ুপথে পেট্রোল ঢেলে নির্যাতন চালিয়েছে। সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

 

 

 

তবে সাতক্ষীরা ৩৩ বিজিবি ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক লেফটেনেন্ট কর্ণেল খন্দকার মহিউদ্দিন বিএসএফ তাকে সরাসরি মেরেছে- এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, কবির দেশের ভেতরেই কোন্দলে মারা গেছে। পরে সীমান্তে ফেলে গেছে।