প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  ঘটনাটা কানাডার। ১৬ বছর বয়সী এক কিশোর ঘন্টায় ১০৬ মাইল গতিবেগে গাড়ি চালাচ্ছিল। এ কারণে পুলিশ তাকে আটক করে। কিন্তু কিশোরটি পুলিশকে জানিয়েছে, সে এতটা উচ্চ গতিবেগে গাড়ি চালিয়েছিল কেননা বাথরুমে যাওয়া তার জন্য ভীষণ জরুরী হয়ে পড়েছিল।

 

 

 

 

 

কিন্তু তার এই অজুহাতে পুলিশের কোনো করুণার উদ্রেক হয়নি। এ জন্য তাকে জরিমানা গুণতে হয়েছে। বৃহস্পতিবার ম্যানিটোবার স্থানীয় পুলিশ ডিপার্টমেন্ট এক টুইটবার্তায় এমনটাই জানিয়েছে।

 

 

 

 

 

পুলিশ বলছে, কিশোরটি যে গাড়ি চালাচ্ছিল সেটি ছিল শ্যাবর্রোলেট ক্যামেরো ব্রান্ডের গাড়ি। তার কাছে যখন ওই আচরণের (উচ্চ গতিতে গাড়ি চালানো) বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হয় সে জানায়, ‘ফাস্টফুড হট উইংস খুব বেশি পরিমাণে খেয়ে ফেলেছিল সে। এ কারণে তার বাথরুমে যাওয়া জরুরী হয়ে পড়েছিল।’

 

 

 

 

 

তবে পুলিশ কর্মকর্তারা তাকে এই কারণে কোনো ধরণের করুণা করেনি বা ছাড় দেয়নি। উচ্চ গতিবেগে গাড়ি চালানো এবং ড্রাইভারের তত্ত্বাবধান ছাড়া গাড়ি চালানোর অপরাধে পুলিশ তাকে  ৬৯০ পাউন্ড জরিমানা করেছে।

 

 

 

 

 

পুলিশ ডিপার্টমেন্ট বলছে, ‘এ ধরণের উচ্চ গতিবেগে গাড়ি চালানোর স্বপক্ষে প্রকৃতপক্ষে কোনো ধরনের অজুহাতই গ্রহণযোগ্য না’ টুইটবার্তায় ম্যানিটোবার পুলিশ ডিপার্টমেন্ট আরো জানিয়েছে, কিশোরের লাইসেন্সটি ‘সম্ভবত’ স্থগিত করে দেওয়া হবে।