প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: প্রেমের টানে চীনা তরুণী হাজারো মাইল পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে ইবনাত মরিয়ম ফাইজার। ফাইজা চীনের হিলংজিয়া প্রদেশের মুদনঞ্জিয়া শহরের ওয়াং হুয়ানঝং ও পাং ইয়ুলিং দম্পতির সন্তান। কলমাকান্দার ছেলে জসিম উদ্দিনের সঙ্গে বিয়ে হয় তার।রোববার (৯ জুন) নেত্রকোণার কলমাকান্দার গুতুরা বাজারে জসিম-ফাইজার বিবাহোত্তর বৌভাতের আয়োজন করা হয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম আজাদের বাড়িতে।

 

 

 

 

 

জানা যায়, চীনা তরুণী ইবনাত মরিয়ম ফাইজারের সঙ্গে চাকরির সুবাদে পরিচয় হয় নেত্রকোণার জসিম উদ্দিনের। তাদের সেই পরিচয় হয় দুবাইয়ে। সেখানেই তাদের বন্ধুত্ব। এরপর তিন বছর তারা দুজন দুই দেশে চলে যান। পরে আবার দুবাইতে দেখা, শেষে বিয়ে। এই বিয়েতে নিজের ধর্ম পাল্টাতে হয়েছে ফাইজাকে। খ্রিস্টান ধর্ম ত্যাগ করে তিনি এখন মুসলিম।

 

 

 

 

 

জসিম উদ্দিন নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার পোগলা ইউনিয়নের গুতুরা গ্রামের ডা. সিরাজুল ইসলামের ছেলে। চার ভাই ও এক বোনের মধ্যে সে মেঝ। ফাইজার চীনের খ্রিস্টান পরিবারের সন্তান। তারা দু’জনই দুবাইতে চাকরি করছেন। ইবনাত মরিয়ম ফাইজার বাবা-মার একমাত্র সন্তান।

 

 

 

 

সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমি খুশী, আমার পুত্রবধূ চীনা বংশদ্ভুত হওয়ায়।’সেই বৌভাতে আসা একজন অতিথি বলেন, ‘ভালোবাসার টানে মানুষ যেখানে সাত সমুদ্র তের নদী পাড়ি দিতে পারে, আর চীন দেশ থেকে কলমাকান্দায়ও আসতে পারে না?’

 

 

 

 

 

ফাইজা আগে খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারি থাকলেও বিয়ের আগে ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেন। প্রেমিক জসিম উদ্দিনের পরিবারের সম্মতিতে কলমাকান্দার গুতুরা বাজারে রোরবার এক বিবাহোত্তর বৌভাতের আয়োজন করা হয়।