প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:ভারতের আহমেদাবাদে হইহুল্লোড় করেই পার্কের রাইডে চেপেছিলেন সকলে। কয়েক মিনিটের রোমাঞ্চকে উপভোগ করার অপেক্ষায় ছিলেন তারা। কিন্তু আচমকা হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল রাইড। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে দু’জনের। এতে আহত হয়েছে আরো অন্তত ২৭ জন।
রবিবার বিকেলে আহমেদাবাদের কঙ্গরিয়া লেক এলাকার পার্কে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে পার্কে আসা মানুষদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

আহমেদাবাদ পৌর কমিশনার বিজয় নেহরা বলেন, ২৯ জনকে এল জি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাঁদের মধ্যে দুজনকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। বাকিদের চিকিৎসা চলছে। ঘটনার তদন্ত চলছে। পুলিশ এবং একটি ফরেনসিক দল সরেজমিনে বিষয়টি খতিয়ে দেখেছেন। কীভাবে ঘটনাটি ঘটল, তার কারণ উদঘাটনের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

এদিকে, নিহতদের পরিবারের প্রতি শোক প্রকাশ করেছেন আহমেদাবাদের মেয়র বিজয় প্যাটেল। দোষীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। তবে এখনও কারও বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

রবিবার ছুটির দিনে এমনিতেই শহরের পার্কগুলোতে বেশি ভিড় জমান সাধারণ মানুষ। পার্কের মনোরম পরিবেশে বন্ধু-বান্ধব, পরিবারের সঙ্গে বেশ খানিকটা সময় হাসি-আড্ডায় কাটাতে ভালবাসেন অনেকেই। সঙ্গে টিকিট কেটে বিভিন্ন রাইডে চড়ে রোমাঞ্চ উপভোগ করতেও চান অনেকেই। তেমনই একটি ঝুঁকিপূর্ণ রাইড ‘ডিসকভারি’তে সওয়ার হয়েছিলেন ৩১ জন। রাইডটিতে ছিল ৩২ জনের আসন। রাইড শুরু হওয়ার পরই ঘটে দুর্ঘটনায় পড়ে।

আহমেদাবাদ পৌরসভার দমকল বিভাগের প্রধান এম এফ দস্তুর জানান, ওই রাইডের মূল দণ্ডের পাইপটি ভেঙে মাটিতে পড়ে যাওয়াতেই ঘটে বিপত্তি। রোলার-কস্টারের কোনও স্ক্রু খুলে যাওয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তবে ফরেনসিক দল তদন্তের পরই দুর্ঘটনার বিস্তারিত কারণ জানাতে পারবে। এদিকে, এমন দুর্ঘটনার জন্য বিজেপি শাসিত শহরের পৌরসভার গাফিলতি রয়েছে বলেই অভিযোগ বিরোধীদের।