প্রেমিকের সঙ্গে নিয়মিত অন্তরঙ্গভাবে মিলিত হতেন তিনি। তবে এদিন চেয়েছিলেন এবার দীর্ঘ সময় ধরে মিলিত হবেন। করলেনও তাই। উদ্দাম যৌ’নতায় মেতে উঠলেন তিনি।

 

 

 

 

 

 

টানা পাঁচ ঘণ্টা ধরে চলে যৌ’নমিলন এবং এর জেরও পোহাতে হয়েছে তার। ঘটনাটি ঘটেছে কলম্বিয়ায়।

 

 

 

 

৩২ বছরের ওই তরুণী ‘দ্য বিস্ট’ নামে পরিচিত। বহুদিন ধরেই এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল তার। এর আগেও বহুবার প্রেমিকের সঙ্গে যৌ’নমিলনে লিপ্ত হয়েছেন তিনি।

 

 

 

 

 

এদিন তার পরিকল্পনা ছিল দীর্ঘক্ষণ ধরে সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার। কলম্বিয়ার সাউর্দান কালিতে একটি হোটেলে উঠেছিলেন তারা। অতিরিক্ত নেশাও করেছিলেন।

 

 

 

 

 

খাওয়া-দাওয়ার পর সোজা বিছানায় চলে যান তরুণ-তরুণী। একে অপরের সঙ্গে যৌ’নসঙ্গমেও লিপ্ত হন। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে উদ্দাম যৌ’নতায় মেতে ওঠেন।

 

 

 

 

 

দীর্ঘক্ষণ পর বিছানাতেই অসুস্থ বোধ করেন তরুণী। তার প্রেমিককে অসুস্থতার কথা জানান।

 

 

 

 

 

 

তড়িঘড়ি হোটেলের জরুরি নম্বরে ফোন করেন ওই যুবক। ঘটনাস্থলে পৌঁছে হোটেল কর্মীরা দেখেন এক্কেবারে নগ্ন অবস্থায় বিছানায় শুয়ে রয়েছেন ওই তরুণী। পাশেই রয়েছেন যুবক। তার অবস্থাও প্রায় একইরকম।সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি ডাকা হয়।

 

 

 

 

 

কোনোক্রমে ওই নারীকে হোটেল থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে ততক্ষণে চিরতরের জন্য অচেতন হয়ে পড়েছেন ‘দ্য বিস্ট’ নামের ওই তরুণী।

 

 

 

 

 

 

চিকিৎসকরা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানিয়ে দেন যে মারা গিয়েছেন তিনি।খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতালে পৌঁছায়। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্ত রিপোর্টে মিলেছে ওই নারীর শরীরে অতিরিক্ত ড্রাগের নমুনা।

 

 

 

 

 

 

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, যৌ’নক্ষমতা বাড়ানোর জন্য অতিরিক্ত ড্রাগ নিয়েছিলেন ওই তরুণী। তার জেরেই টানা পাঁচ ঘণ্টা ধরে প্রেমিকের সঙ্গে হোটেলের ঘরে উদ্দাম যৌ’নতায় মাতেন তিনি। তবে ওই তরুণী রোজই ড্রাগ নিতেন কি না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

 

 

 

 

 

এ ছাড়াও এই মৃত্যুর নেপথ্যে অন্য কোনো কারণ আছে কি না, তাও জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা। নিহত ওই তরুণী স্বেচ্ছায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে যৌ’নমিলনে লিপ্ত হয়েছিলেন কি না, তা জানতে ইতোমধ্যেই ওই যুবকের সঙ্গে কথাবার্তা বলাও শুরু করেছে পুলিশ। সূত্র: মিরর